অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ডেনভারে যুগান্তকারী বর্ণবৈষম্য মামলায় মানবাধিকার কর্মীদের ১কোটি ৪০ লক্ষ ডলার দেয়া হয়েছে


ডেনভার পুলিশ মিনিয়াপলিসে পুলিশ হেফাজতে মারা যাওয়া কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর ঘটনায় স্টেট ক্যাপিটলের বাইরে বিক্ষোভ বন্ধ করতে কাঁদানে গ্যাস এবং রাবার বুলেট ব্যবহার করে। ২৮ মে, ২০২০, ছবি -এপি

২০২০ সালে জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর পরে বর্ণবৈষম্যের বিক্ষোভের সময় শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত শক্তি ব্যবহার করা হয়েছিল বলে দাবি করে ডেনভার পুলিশের বিরুদ্ধে মামলাকারী এক ডজন কর্মীকে ফেডারেল আদালতের জুরি শুক্রবার ১কোটি ৪০ লক্ষ ডলার প্রদান করেছে।

ডেনভার শহরটি এর আগে ফ্লয়েডের বিক্ষোভে পুলিশের প্রতিক্রিয়া থেকে উদ্ভূত বেশ কয়েকটি নাগরিক অভিযোগের নিষ্পত্তি করেছে। তবে আমেরিকান সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়নের মতে,শুক্রবার সিদ্ধান্ত নেয়া মামলাটি দেশটিতে এই ধরনের প্রথম মামলা ছিল।

জুরির প্রায় তিন ঘণ্টার আলোচনার পর দেওয়া রায়টি ডেনভারের ইউএস ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে তিন সপ্তাহব্যাপী বিচার সম্পন্ন করেছে।

২০২০ সালের জুনে দায়ের করা মামলাটিতে একজন ফেডারেল বিচারক ডেনভারে সহিংসতার প্রতিক্রিয়া হিসেবে পুলিশের উপরে একটি অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করে। নিষেধাজ্ঞা অনুযায়ী ডেনভারের পুলিশকে সুনির্দিষ্টি সহিংসতার বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে কাঁদানে গ্যাস, প্লাস্টিক বুলেট, ফ্ল্যাশ-ব্যাং গ্রেনেড এবং অন্যান্য "কম-প্রাণঘাতী" বল ব্যবহারে বাধা দেওয়া হয়েছে।

ফ্লয়েড, যিনি কিনা একজন নিরস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি ছিলেন, মিনিয়াপোলিসে একজন শ্বেতাঙ্গ পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তারের সময় তাঁর ঘাড়ে হাঁটু গেড়ে বসলে ফ্লয়েডের মৃত্যু হয়। ২০২০ সালের গ্রীষ্মে ডেনভার সহ সারা দেশের শহরগুলিতে পুলিশের বর্বরতা এবং জাতিগত অবিচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের তরঙ্গ ছড়িয়ে পড়ে।

XS
SM
MD
LG