অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সহিংসতা দমনে ইসরাইল ও ফিলিস্তিনিদের চাপ দিচ্ছেন জর্ডানের বাদশাহ


ইসরায়েলি প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজোগ (বামে), জর্ডানের বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহ’র সাথে করমর্দন করছেন। আম্মান, জর্ডান, ৩০ মার্চ, ২০২২।

আম্মান, জর্ডান — জর্ডানের বাদশাহ আবদুল্লাহ ইসরাইল ও গাজার মধ্যে গত বছরের রমজানের সহিংসতার পুনরাবৃত্তি রোধ করার জন্য আলাদাভাবে ফিলিস্তিনি ও ইসরাইলি নেতাদের কূটনৈতিক সমাধানের জন্য চাপ দিচ্ছেন।বাদশাহ বুধবার ইসরাইলের প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজোগের সাথে দেখা করেন, এটি জর্ডানে ইসরাইলি কোনও রাষ্ট্রপ্রধানের প্রথম সরকারী সফর। এটি এমন সময় অনুষ্ঠিত হল, যখন ইসরাইল নতুন করে মারাত্মক সহিংসতার বিস্তারের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। দেশটিতে মঙ্গলবার তেল আবিব শহরতলিতে একটি হামলাসহ গত এক সপ্তাহে তিনটি হামলায় অন্তত পাঁচজন নিহত হয়।

গত সপ্তাহে একাধিক প্রাণঘাতী হামলার পর, ইসরাইল ইতিমধ্যেই উচ্চ সতর্কতায় রয়েছে এবং ফিলিস্তিনি অঞ্চলে সহিংসতার প্রাদুর্ভাবের বিষয়ে উদ্বেগের মধ্যে রয়েছে।

জর্ডানের বিশ্লেষক আমের সাবাইলেহ ভিওএ’ কে বলেছেন, বাদশাহ আবদুল্লাহ অঞ্চলগুলির নিরাপত্তা এবং স্থিতিশীলতা নিয়ে উদ্বিগ্ন, বিশেষ করে পশ্চিম তীরে, যেখানে এই সপ্তাহান্তে রমজান আসার সাথে সাথে উত্তেজনা বাড়ছে।

সাবাইলেহ ওয়াশিংটন ভিত্তিক স্টিনসন সেন্টারের একজন অনাবাসী ফেলো।

সাবাইলেহ বলেন, “জর্ডানের জন্য আজকে প্রধান চ্যালেঞ্জ হল পশ্চিম তীরে কোনো ধরনের অশান্তি বা অস্থিতিশীলতা এড়ানো, কারণ বেশিরভাগ প্রতিবেদনে সহিংসতা বৃদ্ধির কথা বলা হয়েছে। জর্ডানের জন্য একটি প্রধান সমস্যা হল, এই পর্যায়ে কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা এড়াতে, পশ্চিম তীরের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা। এর জন্য প্রয়োজন সবার সঙ্গে নমনীয় কূটনীতি।

ওই এলাকায় এপ্রিল হল একটি স্পর্শকাতর সময় যখন রমজান, পাসওভার এবং ইস্টার এক সাথে পালিত হয়। গত বছর ধর্মীয় ছুটির এই সমন্বিত সময়ে জেরুজালেমে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ইসরাইল ও গাজার মধ্যে ১১ দিনের যুদ্ধ শুরু হয় এবং ইসরাইলি-আরব জাতিগোষ্ঠীগত সহিংসতা দেখা দেয়।

বাদশাহ এবং ইসরাইলি প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজগ উভয়ই বলেছেন, তারা পরস্পরের সম্পর্ক গভীর করতে এবং আঞ্চলিক নিরাপত্তা বজায় রাখতে একসাথে সমস্যাগুলি মোকাবেলা করছেন।

XS
SM
MD
LG