অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

প্রথম দিনটি নিজেদের দাবি করতে পারে বাংলাদেশ–দক্ষিণ আফ্রিকা, দুই দলই


দক্ষিণ আফ্রিকা ও বাংলাদেশের মধ্যকার ডারবান টেস্টের প্রথম দিন.

দক্ষিণ আফ্রিকা ও বাংলাদেশের মধ্যকার ডারবান টেস্টের প্রথম দিন আগে ব্যাটিং করে দক্ষিণ আফ্রিকা ৪ উইকেটে ২৩৩ রান তুলেছে। সাইটস্ক্রিন সমস্যার কারণে ৩৩ মিনিট দেরিতে দিনের খেলা শুরু হওয়ায় আজ নির্ধারিত ৯০ ওভারের খেলা হয়নি। ৭৬.৫ ওভার খেলার পর আলোর স্বল্পতার কারণে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। এর পর আর শুরুই করা যায়নি। দিনের খেলার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয় সেখানেই।

ডারবানের কিংসমিডে এমনিতেই বোলাররা কিছুটা সুবিধা পায় শুরুর দিকে। বাংলাদেশ সেটি ভেবেই টসে জিতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে প্রথমে ব্যাটিংয়ে পাঠায়। বাংলাদেশ দল সাজানো হয়েছে এই টেস্টে তিন পেসার নিয়ে—তাসকিন আহমেদ, ইবাদত হোসেন ও খালেদ আহমেদ। সঙ্গে একমাত্র স্পিনার হিসেবে মেহেদী হাসান মিরাজ। জানুয়ারিতে নিউজিল্যান্ডে টেস্ট খেলা বাঁ হাতি পেসার শরীফুল ইসলামকে হালকা চোট থাকায় ডারবানে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। তবে বাংলাদেশের জন্য বড় ধাক্কা ছিল পেটের পীড়ায় আক্রান্ত হয়ে শেষ মুহূর্তে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান তামিম ইকবালের না খেলাটা। তাঁর জায়গায় নেওয়া হয়েছে বাঁ হাতি ব্যাটসম্যান সাদমান ইসলামকে।

টসে জিতে ফিল্ডিং নিয়ে শুরুতেই দক্ষিণ আফ্রিকাকে ধাক্কা দিতে চেয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু সেটি হয়নি। প্রথম সেশনে কোনো উইকেটই পড়েনি। দুই প্রোটিয়া উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ডিন এলগার ও সারিল এরউই শুরুটা দারুণ করেন। মধ্যাহ্ন বিরতির আগেই এই দুই ব্যাটসম্যান তুলে ফেলেন ৯৫ রান। বিরতির ঠিক আগের ওভারে অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজের বলে এরউই মারতে গিয়ে উইকেটের পেছনে দাঁড়ানো লিটন দাসকে ক্যাচ দিয়েছিলেন। কিন্তু লিটন ক্যাচটা নিতে পারেননি। ক্যাচ ফেলার হতাশা নিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় বাংলাদেশ।

বিরতি থেকে ফিরে অবশ্য সাফল্য পায় বাংলাদেশ। দারুণ এক ওভারে দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক ডিন এলগারকে উইকেটের পেছনে লিটন দাসের ক্যাচ বানান পেসার খালেদ আহমেদ। আউট হওয়ার আগে বেশ কয়েকটি বলে খালেদ অস্বস্তি তৈরি করেছিলেন এলগারের মধ্যে। শেষ পর্যন্ত সেই অস্বস্তিতে সঙ্গী করেই ফেরেন তিনি। আউট হওয়ার আগে এলগারের সংগ্রহ ছিল ১০১ বলে ৬৭।

এলগারের ফেরার ৫ বলের মধ্যেই বাংলাদেশ আউট করে এরউইকে। তাঁকে বোল্ড করেন ওই মেহেদী হাসান মিরাজই। সুইপ করতে গিয়ে উইকেট দেন তিনি। এই সময় দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ছিল ১১৭ রান।

তবে আজকের দিনের সবচেয়ে দুর্দান্ত ঘটনা ছিল কিগান পিটারসেনকে সরাসরি থ্রোতে ফেরানো। উইকেটে থিতু হয়ে গিয়েছিলেন পিটারসেন। ৩৬ বলে ১৯ রান করে ফেলেছিলেন। তাসকিনের বলে টেম্বা বাভুমা বলটি ঠেলেছিলেন ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টের দিকে। সেখান থেকে বল কুড়িয়ে সরাসরি থ্রোতে পিটারসেনকে রান আউট করেন মিরাজ।

৩ উইকেট নিয়ে উজ্জীবিত বাংলাদেশ চতুর্থ উইকেটটিও তুলে নেয় এর কিছুক্ষণ বাদেই। ইবাদত হোসেনের বলে মেরে খেলতে গিয়ে মিড অনে ক্যাচ দেন রায়ান রিকেলটন। দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ তখন ৪ উইকেটে ১৮০। চা বিরতিতে বাংলাদেশ যায় বেশ তৃপ্তি নিয়েই।

শেষ সেশনে টেম্বা বাভুমা আর কাইল ভেরেইনের পঞ্চম উইকেট জুটিতে অবিচ্ছিন্ন থাকেন ৫৩ রানে। এই জুটিই দ্বিতীয় সেশনের ধাক্কা কিছুটা সামলে ওঠার চেষ্টা করেন। বাভুমা দিন শেষ ১১৯ বলে ৫৩ রানে অপরাজিত। ভেরেইন অপরাজিত ৬৪ বলে ২৭ রানে।

বাংলাদেশের অধিনায়ক মুমিনুল হক শেষ দিকে নিজেকেও আক্রমণে এনেছিলেন। তিনি ৩ ওভারে ৮ রান দিয়েছেন। একটি করে উইকেট পেয়েছেন ইবাদত হোসেন, খালেদ আহমেদ ও মেহেদী হাসান মিরাজ। রান দিয়েছেন যথাক্রমে ৫৮, ৪৯ ও ৫৭। তাসকিন আহমেদ১৮ ওার বোলিং করে ৫৮ রান দিয়ে কোনো উইকেট পাননি।

আজ টেস্টের প্রথম দিন যেকোনো বিচারেই বাংলাদেশের সেরা মুহূর্ত মিরাজের সরাসরি থ্রোতে পিটারসেনের ফেরা। দিন শেষেও সংবাদ সম্মেলনে কথা বলতে এসে বাংলাদেশের কোচ রাসেল ডমিঙ্গো সেই রান আউটের প্রশংসা করলেন। এই রান আউট তার চোখে অন্যতম সেরা, "এটা আমার দেখা অন্যতম সেরা রান আউট।"

রান আউটের নায়ক মিরাজেরও প্রশংসা ঝরেছে তার কণ্ঠে, "মিরাজ বাংলাদেশ দলের দুর্দান্ত এক ক্রিকেটার। ব্যাটে–বলে দুই জায়গাতেই সে দুর্দান্ত। সে দারুণ দারুণ ক্যাচও নেয়। তার মানসিকতার প্রশংসা করতেই হয়। উজ্জীবিত এক ক্রিকেটার মিরাজ। এই রান আউটটা এল এমন এক ক্রিকেটারের কাছ থেকে যে এ মুহূর্তে নিজের খেলা নিয়ে দারুণ আত্মবিশ্বাস।"

XS
SM
MD
LG