অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউক্রেনে রাশিয়ার লক্ষ্য পরিবর্তনের পর রেডক্রস আবার মারিউপোলের দিকে রওনা হয়েছে


মারিউপোল ও আশেপাশের শহরগুলো থেকে অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত মানুষেরা ইউক্রেনের জাপোরিঝিয়ায় পৌঁছেছেন। ১ এপ্রিল ২০২২

ইউক্রেনীয় শহর মারিউপোলে অবস্থানরত একটি রেডক্রস দল শনিবার (২ এপ্রিল) অবরুদ্ধ বন্দর থেকে বেসামরিক মানুষদের সরিয়ে নেওয়ার আরেকটি প্রচেষ্টা করবে, যেহেতু রাশিয়ার বাহিনী দক্ষিণ-পূর্বে নতুন আক্রমণের জন্য আবারও সংগঠিত হচ্ছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পাঁচ-সপ্তাহ ধরে চলা রাশিয়ার আক্রমণের প্রথম দিন থেকে মারিউপোল অবরুদ্ধ রয়েছে। অঞ্চলটি ইউক্রেনের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় দনবাসে মস্কোর প্রধান লক্ষ্য ছিল। সেখানে হাজার হাজার মানুষ খাদ্য ও পানির অভাবের কারণে আটকা পড়েছেন।

ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অফ দ্য রেডক্রস (আইসিআরসি) শুক্রবার প্রায় ৫৪টি ইউক্রেনীয় বাস এবং অন্য ব্যক্তিগত যানবাহন শহরের বাইরে নিয়ে যাওয়ার জন্য একটি দল পাঠিয়েছিল। পরিস্থিতি অনুকুলে না থাকার তারা ফিরে আসে।

“তারা শনিবার আবার চেষ্টা করবে বেসামরিক নাগরিকদের নিরাপদে সরিয়ে নিতে”, আইসিআরসি এক বিবৃতিতে বলেছে। মার্চের শুরুতে নিরাপত্তাজনিত কারণে বেসামরিক মানুষদের সরিয়ে নিতে রেডক্রসের আরেকটি প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়।

রাশিয়া ও ইউক্রেন যুদ্ধের মধ্যে মানবিক করিডোর খুলতে সম্মত হয়েছে, যা হাজার হাজার বেসামরিক মানুষকে সরিয়ে নেওয়ায় কাজে লাগবে।

আইসিআরসি বলেছে যে, তাদের মারিউপোল অপারেশন উভয় পক্ষের দ্বারা অনুমোদিত হয়েছে। তবে প্রধান বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করা হচ্ছে; যেমন দলটি কখন যাবে, এবং গন্তব্য কোথায় হবে, যেটা ইউক্রেনের একটি অনির্ধারিত স্থানে হতে পারে।

ভোরবেলা এক ভিডিও বার্তায়, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি সতর্ক করে বলেন, রাশিয়ান সেনারা দনবাস অঞ্চল এবং উত্তর-পূর্ব দিকে ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর খারকিভের দিকে অগ্রসর হয়েছে। এই অঞ্চলে পূর্ববর্তী হামলায় শহরাঞ্চলগুলো ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

XS
SM
MD
LG