অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউক্রেনের বুচায় সম্ভাব্য যুদ্ধাপরাধের প্রমাণাদি সংগ্রহ করছে জাতিসংঘের মানবাধিকার দফতর


পিঠের পিছনে হাত বাঁধা অবস্থায় একজন মৃত বেসামরিক ব্যক্তিকে ইউক্রেনের কিয়েভের কাছে বুচায় মাটিতে পড়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। ৪ এপ্রিল, ২০২২।

জেনেভা — জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার দফতর বলছে, তারা ইউক্রেনের বুচা শহরে রাশিয়ান বাহিনীর দ্বারা সংঘটিত সম্ভাব্য যুদ্ধাপরাধের প্রমাণ সংগ্রহ করছে।

জাতিসংঘের মানবাধিকার প্রধান মিশেল ব্যাশেলে রাজধানী কিয়েভের উপকণ্ঠে বুচা শহরের রাস্তায় মৃত বেসামরিক নাগরিকদের ছবি দেখে আতঙ্ক প্রকাশ করেছেন। তার মুখপাত্র লিজ থ্রোসেল বলেছেন, অত্যাচার করে মেরে ফেলা মৃতদেগুলির বিকৃত ছবি দেখা অত্যন্ত কষ্টের ব্যাপার।

থ্রোসেল জানিয়েছেন, লোকেদের হাত বাঁধা, অর্ধ নগ্ন মহিলাদের এবং দেহ পোড়ানোর ছবি পরিস্কার ভাবে এ কথাই নির্দেশ করে যে তাদের সরাসরি লক্ষ্যবস্তু করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক মানবিক আইনের অধীনে, বেসামরিক নাগরিকদের ইচ্ছাকৃতভাবে হত্যা একটি যুদ্ধাপরাধ।

অন্যদিকে, আন্তর্জাতিক আপরাধ আদালত, আইসিসি ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর যুদ্ধাপরাধের অভিযোগের তদন্ত শুরু করেছে। আইসিসির প্রধান অভিশংসক বলেছেন,সংঘাতের সময় যুদ্ধাপরাধ সংঘটিত হয়েছে, তা বিশ্বাস করার যুক্তিসঙ্গত ভিত্তি আছে। তিনি বলেন, সম্ভাব্য যুদ্ধাপরাধ, মানবতাবিরোধী অপরাধ ও গণহত্যার প্রমাণ সংগ্রহ করা হচ্ছে।

থ্রোসেল আরও বলেন, এই কাজটি চালিয়ে যাওয়া এবং এই ধরনের অপরাধে অপরাধীদের জবাবদিহি করা এবং বিচারের আওতায় আনা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

তবে রাশিয়া ইউক্রেনে তাদের সৈন্যরা যুদ্ধাপরাধ করেছে, এই অভিযোগকে মিথ্যা প্রচারণা বলে অস্বীকার করেছে। বরং তারা ইউক্রেনের বিশেষ বাহিনীকে ক্রেমলিনের খ্যাতি নষ্ট করার জন্য বুচায় একটি মিথ্যা দৃশ্যের মঞ্চায়ন করার পাল্টা অভিযোগ করছে।

XS
SM
MD
LG