অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বহিষ্কৃত আওয়ামী লীগ নেতা এনু-রুপনের বিরুদ্ধে অর্থপাচারের অভিযোগে করা মামলায় রায় ২৫ এপ্রিল


বহিষ্কৃত আওয়ামী লীগ নেতা এনামুল হক ভূঁইয়া ওরফে এনু ও তার ভাই রুপন ভূঁইয়া

বহিষ্কৃত আওয়ামী লীগ নেতা এনামুল হক ভূঁইয়া ওরফে এনু ও তার ভাই রুপন ভূঁইয়াসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের অভিযোগে করা এক মামলায় রায়ের তারিখ আগামী ২৫ এপ্রিল ধার্য করেছেন আদালত।

বুধবার (৬ এপ্রিল) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত ৫–এর বিচারক ইকবাল হোসেনের আদালতে মামলাটি রায় ঘোষণার জন্য ধার্য ছিল। কিন্তু বিচারক ছুটিতে থাকায় রায় নির্ধারিত দিন হচ্ছে না বলে জানান সংশ্লিষ্ট আদালতের পেশকার সাইফুল ইসলাম।

আদালতের বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর শওকত আলম বলেন, “রায়ের পরবর্তী তারিখ চলতি মাসের ২৫ এপ্রিল ধার্য করেছেন ভারপ্রাপ্ত বিচারক মনির কামাল”।

গত ১৬ মার্চ রাষ্ট্রপক্ষ ও অভিযুক্ত পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে আদালত রায়ের জন্য ৬ এপ্রিল বুধবার দিন ধার্য করেছিলেন।

মামলার অপর অভিযুক্তরা হলেন—মেরাজুল হক ভূঁইয়া শিপলু, রশিদুল হক ভূঁইয়া, সহিদুল হক ভূঁইয়া, জয় গোপাল সরকার, পাভেল রহমান, তুহিন মুন্সি, আবুল কালাম আজাদ, নবীর হোসেন শিকদার ও সাইফুল ইসলাম।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, অভিযুক্তদের মধ্যে শিপলু, রশিদুল, সহিদুল ও পাভেল মামলার শুরু থেকে পলাতক আছেন। তুহিন জামিনে আছেন। অপর ৬ অভিযুক্ত কারাগারে আছেন।

২০১৯ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর ক্যাসিনো বিরোধী অভিযানে ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের ক্যাসিনো খেলা পরিচালনাকারী এনুর কর্মচারী আবুল কালাম আজাদের বাসায় ক্যাসিনো থেকে উপার্জিত টাকা উদ্ধারের জন্য ওয়ারীর লালমোহন সাহা স্ট্রিটের বাড়ি ঘেরাও করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। চারতলা বাড়ির দোতলা থেকে দুই কোটি টাকা উদ্ধার করে আইনশঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

এ ঘটনায় ২৫ নভেম্বর ওয়ারী থানায় মামলা দায়ের করা হয়। মামলাটি তদন্ত করে ২০২০ সালের ২১ জুলাই ১১ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক মোহাম্মদ ছাদেক আলী।

XS
SM
MD
LG