অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পুলিশ বাহিনীকে জনগণের কল্যাণে কাজ করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রবিবার (১০ এপ্রিল) বলেছেন, তার সরকার একটি সুপ্রশিক্ষিত ও শিক্ষিত পুলিশ বাহিনী গড়ে তুলতে চায়, যারা জনগণের কল্যাণে কাজ করবে।

তিনি বলেন, “আমাদের লক্ষ্য হলো জনগণের পুলিশ বাহিনী গড়ে তোলা, যা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ছিল”।

বাংলাদেশের ৬৫৯টি থানায় নারী, শিশু, বয়স্ক ও প্রতিবন্ধীদের জন্য “সার্ভিস ডেস্ক” উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন শেখ হাসিনা। এ ছাড়াও তিনি দেশের বিভিন্ন স্থানে গৃহহীনদের জন্য পুলিশ বাহিনীর তৈরি ৪০০টি বাড়ি হস্তান্তর করেন। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ পুলিশের পক্ষ থেকে এই মানবিক উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

শেখ হাসিনা তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে রাজারবাগে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইনসে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভার্চ্যুয়ালি যোগ দেন।

শেখ হাসিনা বলেন, “আওয়ামী লীগ সরকার পুলিশকে একটি বিশেষায়িত জনবান্ধব বাহিনী হিসেবে গড়ে তুলতে সব ধরনের সহায়তা ও সুযোগ-সুবিধা দিয়ে আসছে”।

পুলিশ বাহিনীকে অত্যন্ত সততার সঙ্গে কাজ করতে দেখতে চাই উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, “জনগণের আস্থা অর্জনের জন্য পুলিশ সদস্যদের নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করতে হবে”।

তিনি বলেন, তার সরকারের উন্নয়ন মূল দর্শন হলো তৃণমূল পর্যায় থেকে শুরু করতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, “সরকার গঠনের পর আমরা তৃণমূল পর্যায় থেকে উন্নয়নে কাজ করছি।…দেশের উন্নয়নের সুফল সবাইকে পেতে হবে। আমাদের সরকার সব সময় এটি মাথায় রেখে কাজ করে”।

দেশের একজন ব্যক্তিও ভূমিহীন, গৃহহীন ও ঠিকানাহীন থাকবে না এই দৃঢ় সংকল্প পুনর্ব্যক্ত করেন শেখ হাসিনা। এ প্রসঙ্গে তিনি লক্ষ্য অর্জনে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কথা উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব এম আখতার হোসেন প্রমুখ বক্তব্য দেন।

XS
SM
MD
LG