অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষা এপ্রিলে এবং এইচএসসি জুনে—জেএসসির বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি


বাংলাদেশে চলতি বছর (২০২৩) মাধ্যমিক (এসএসসি) এপ্রিলে আর উচ্চমাধ্যমিক (এইচএসসি) পরীক্ষা জুন মাসে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি আরও জানিয়েছেন, জেএসসি পরীক্ষার বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) বাংলাদেশ সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

দীপু মনি বলেন, “২০২৩ সালের এসএসসি, দাখিল ও সমমান পরীক্ষা এপ্রিলে এবং এইচএসসি, আলিম ও সমমান পরীক্ষা জুন মাসে অনুষ্ঠিত হবে”।

তিনি জানান, ২০২৩ সালের এসএসসি, দাখিল ও সমমান পরীক্ষা ২০২২ সালের পরীক্ষার জন্য ঘোষিত সিলেবাস অনুযায়ী অনুষ্ঠিত হবে। আর ওই বছরের এইচএসসি, আলিম ও সমমান পরীক্ষা ২০২২ সালের জন্য নির্ধারিত ১৮০ কর্মদিবসের পাঠ্যসূচি অনুসারে অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষা সকল বিষয়ে হবে এবং পূর্ণ নম্বরে হবে।

তিনি বলেন, “বর্তমানে দশম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা ২০২৩ সালে এসএসসি, দাখিল ও সমমান পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে।…২০২২ সালের ১৫ মার্চ থেকে তারা সরাসরি শ্রেণি কার্যক্রমে সপ্তাহে ৬ দিন করে অংশগ্রহণের সুযোগ পাচ্ছে। আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত সরাসরি শ্রেণি কার্যক্রম অব্যাহত থাকলে এই পরীক্ষার্থীরা নবম ও দশম শ্রেণিতে মিলে সর্বমোট ১৬২ কর্মদিবস শ্রেণি কার্যক্রমে অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে”।

তিনি আরও জানান, সবদিক বিবেচনায় ২০২৩ সালের এসএসসি, দাখিল ও সমমান পরীক্ষা ২০২২ সালের পরিমার্জিত পাঠ্যসূচি অনুসারেই অনুষ্ঠিত হবে।

দীপু মনি বলেন, “বর্তমানে একাদশ শ্রেণিতে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা ২০২৩ সালে এইচএসসি, আলিম ও সমমান পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন। এই শিক্ষার্থীরা ২০২১ সালের ১ জুলাই থেকে একাদশ শ্রেণিতে ক্লাস করার কথা ছিল কিন্তু তারা ক্লাস শুরু করতে পেরেছেন ২০২২ সালের ২ মার্চ থেকে এবং তারা ৮ মাস ক্লাস করার সুযোগ পাননি। ২০২৩ সালের এইচএসসি, আলিম ও সমমান পরীক্ষা ২০২২ সালের পরীক্ষার জন্য নির্ধারিত ১৮০ কর্মদিবসের পাঠ্যসূচি অনুসারে অনুষ্ঠিত হবে”।

উল্লেখ্য, সরকারের একাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী প্রতি বছর ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি এবং ১ এপ্রিল থেকে এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। তবে কোভিড-১৯ মহামারির কারণে গত দুই বছরে এই পরীক্ষাগুলো যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হয়নি।

জেএসসি পরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত এখনো হয়নি

দীপু মনি আরও বলেছেন, চলতি বছরের জেএসসি পরীক্ষার বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আরও এক থেকে দেড় মাস সময় লাগবে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, “আমাদের অনেকগুলো লজিস্টিকস দেখতে হবে। এ বছরের এসএসসি জুন মাসে হওয়ার কথা, এএইচএসসি অগাস্ট মাসে হওয়ার কথা। আমাদের কাছে যা মনে হচ্ছে এইচএসসি অগাস্টে হলে জেএসসি-জেডিসি আয়োজন করা আমাদের জন্য খুবই কষ্টকর হয়ে যাবে। কারণ, বোর্ডগুলো এইচএসসি নিয়ে এবং ফলাফল প্রকাশসহ সবকিছু নিয়ে ব্যস্ত থাকবে। আবার যখন জেএসসি হবে তখন আবার কিছুদিন কিন্তু তারা ক্লাস করার সুযোগ পাবে না”।

তিনি বলেন, “জেএসসি-জেডিসি নিয়ে আমরা এখন পর্যন্ত সিদ্ধান্ত নিইনি। আমরা আরও কিছুদিন দেখি, তারপরে আমরা জানিয়ে দেব। সামনে এসএসসি-এইএইচএসসি পরীক্ষা আছে। সেগুলোতে আমাদের লজিস্টিকসগুলো দেখে আমাদের কাছে যদি মনে হয় নিতে পারব তাহলে আমরা নেব”।

তিনি আরও বলেন, “কিন্তু এর জন্য আরও এক থেকে দেড় মাস দেখে তারপর সিদ্ধান্ত নিতে চাই। ঠিক এই মুহূর্তে সিদ্ধান্ত জানাচ্ছি না। অবশ্য শিক্ষার্থীদের বার্ষিক পরীক্ষা হবে। সেটার জন্য তো তাদের প্রস্তুতি থাকবেই। তবে এটাও ঠিক দুই বছর হয়নি এ পরীক্ষাটা। আর ২০২৩ সাল থেকে এটা থাকছেও না”।

XS
SM
MD
LG