অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

উত্তর কোরিয়ার অস্ত্র পরীক্ষার বিরুদ্ধে “যথাসম্ভব শক্তিশালী প্রতিরোধের” প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের দূত


দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলে পররাষ্ট্র মন্ত্রকে এক সংবাদ সম্মেলনে কোরিয়ান উপদ্বীপের শান্তি ও নিরাপত্তা বিষয়ক দক্ষিণ কোরিয়ার বিশেষ প্রতিনিধি নোহ কিউ-ডুক বক্তব্য দিচ্ছেন। উত্তর কোরিয়াবিষয়ক যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ প্রতিনিধি সুং কিম তার দিকে তাকিয়ে আছেন। ১৮ এপ্রিল ২০২২

পিয়ংইয়ং আবারও পরমাণু পরীক্ষা শুরু করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে, এমন উদ্বেগের মধ্যে উত্তর কোরিয়াবিষয়ক যুক্তরাষ্ট্রের দূত সোমবার (১৮ এপ্রিল) বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া উত্তর কোরিয়ার “বাড়তি উদ্যোগের” বিরুদ্ধে “যথাসম্ভব শক্তিশালী যৌথ প্রতিরোধ” বজায় রাখবে।

যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ প্রতিনিধি সুং কিম এবং তার ডেপুটি জং পাক পাঁচ দিনের সফরে সোমবার ভোরে সিউলে পৌঁছান। তারা দক্ষিণ কোরিয়ার কর্মকর্তাদের পাশাপাশি পরমাণু দূত নোহ কিউ-ডুকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

নোহের সঙ্গে আলোচনার পর কিম সাংবাদিকদের বলেন, “জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদকে ডিপিআরকের (উত্তর কোরিয়ার আনুষ্ঠানিক নাম) কাছে একটি স্পষ্ট সংকেত পাঠাতে হবে যে, আমরা তাদের বর্ধিত ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা স্বাভাবিকভাবে গ্রহণ করব না”।

“আমরা উপদ্বীপে সবচেয়ে শক্তিশালী যৌথ প্রতিরোধ ক্ষমতা বজায় রাখার প্রয়োজনীয়তার বিষয়ে একমত হয়েছি”, তিনি বলেছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাদের নয় দিনের বার্ষিক যৌথ সামরিক মহড়া শুরু হওয়ার আগ মুহূর্তে কিম এই সফরে যান।

উত্তর কোরিয়া এই যৌথ মহড়াকে যুদ্ধের মহড়া হিসেবে নিন্দা করেছে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে পিয়ংইয়ংকে কূটনীতিক আলোচনায় সংযুক্ত করার প্রচেষ্টা এবং কোভিড-১৯ বিধিনিষেধের কারণে মহড়ার সময় পেছানো হয়েছিল।

উল্লেখ্য, উত্তর কোরিয়া শনিবার আরেকটি পরীক্ষা চালিয়েছে, যা কৌশলগত পারমাণবিক অস্ত্র পরিবহনে সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্র বলে রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম উল্লেখ করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের দূত বারবার উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে আবারও আলোচনায় যুক্ত হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন। কিন্তু পিয়ংইয়ং এখন পর্যন্ত সকল পদক্ষেপ প্রত্যাখ্যান করেছে এবং ওয়াশিংটনের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা ও সামরিক মহড়ার মতো বৈরী নীতি বজায় রাখার অভিযোগ তুলেছে।

কিম নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ইউন সুক-ইওলের ট্রানজিশন টিমের (এক প্রশাসন থেকে অন্য প্রশাসনে পরিবর্তনকারী দল) সঙ্গেও দেখা করবেন বলে আশা করা হয়েছিল। ইউন মে মাসে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন।

দলের একজন মুখপাত্র বলেছেন যে, ইউন এবং কিমের মধ্যে কোনও বৈঠক নিশ্চিত হয়নি, তবে ইউনের মনোনীত পররাষ্ট্রমন্ত্রী পার্ক জিন বলেছেন যে, তিনি কিমের সঙ্গে দেখা করার পরিকল্পনা করেছেন।

কিম নোহের সঙ্গে আলোচনায় আরও বলেন যে, ওয়াশিংটন ইউনের দলের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার জন্য প্রস্তুত।

XS
SM
MD
LG