অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে বিভিন্ন ধর্মের মানুষকে যারা বিভক্তের চেষ্টা করছে তাদের থামাতে হবে—যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ দূত


যুক্তরাষ্ট্রের ধর্মীয় স্বাধীনতাবিষয়ক বিশেষ দূত রাশাদ হোসেন ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম

যুক্তরাষ্ট্রের ধর্মীয় স্বাধীনতাবিষয়ক বিশেষ দূত রাশাদ হোসেন বলেছেন, “বাংলাদেশে বিভিন্ন ধর্ম-গোষ্ঠীর মানুষ শান্তিপূর্ণভাবে এক সঙ্গে বসবাস করছে দেখে আমরা খুবই উৎসাহিত হয়েছি। আমরা বিশ্বের সর্বত্র ধর্মীয় স্বাধীনতা দেখতে চাই। তবে যারা তাদের বিভক্ত করার এবং জটিলতা সৃষ্টির চেষ্টা করছে তাদের থামাতে হবে”।

বুধবার (২০ এপ্রিল) ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলমের সঙ্গে সাক্ষাতের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রাশাদ হোসেন শান্তিপূর্ণভাবে একসঙ্গে বসবাস করা বিশাল সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের কথা উল্লেখ করে বলেন, “আমাদের অবশ্যই শান্তিপূর্ণভাবে এক সঙ্গে বসবাস করতে হবে”।

প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ দূত রাশাদ হোসেনকে জানান, “বাংলাদেশে সবাই সমান অধিকার ভোগ করে এবং তারা কাউকে ধর্মীয় সংখ্যালঘু বলে না বরং তাদের সমান নাগরিক হিসাবে বিবেচনা করে”।

শাহরিয়ার আলম “কক্সবাজারের রামু উপজেলায় বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের ওপর হামলা ও কুমিল্লার বিভিন্ন মন্দিরে হামলাসহ কিছু ঘটনা শেয়ার করেছেন এবং ভুয়া ফেসবুক আইডি ব্যবহৃত হওয়ায় উস্কানি দেওয়ার জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম কীভাবে নেতিবাচক ভূমিকা পালন করতে পারে” তা উল্লেখ করেছেন।

শাহরিয়ার আলম বলেন, “আমরা এই বিষয়গুলো খুব খোলামেলাভাবে আলোচনা করেছি। এটা বিশ্বব্যাপী একটি চ্যালেঞ্জিং বিষয়”।

তিনি জানান, “রোহিঙ্গা ইস্যু” নিয়েও তারা আলোচনা করেছেন।

XS
SM
MD
LG