অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জেরুজালেম সংঘর্ষ আবার শুরু হওয়ায় গাজায় সহিংসতা তীব্রতর হয়েছে


ইসরাইলি বিমান হামলার সময় কেন্দ্রীয় গাজা উপত্যকায় আগুন এবং ধোঁয়া দেখা যাচ্ছে। ২১শে এপ্রিল, ২০২২

জেরুজালেমের সবচেয়ে স্পর্শকাতর পবিত্র স্থানটিতে আবার সংঘর্ষ শুরু হওয়ায় ইসরাইলের বিমান বাহিনী এবং ফিলিস্তিনি জঙ্গিরা বৃহস্পতিবার ভোরে গাজা সীমান্ত জুড়ে গুলি চালিয়েছে। এই সংঘর্ষ এমন রূপ নিচ্ছে যা কিনা গত বছরের ইসরাইল-গাজা যুদ্ধকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে।

জেরুজালেমে ইসরাইলি পুলিশ এবং ফিলিস্তিনিদের মধ্যে অস্থিরতার কারণে গাজা ফ্রন্টে সহিংসতা গত বছরের ১১ দিনের যুদ্ধের পর থেকে সবচেয়ে বড় ধরণের সীমান্ত লড়াই বলে মনে হচ্ছে এবং পুনরাবৃত্তি প্রতিরোধের প্রচেষ্টা সত্ত্বেও সংঘর্ষ হচ্ছে। । এই সপ্তাহে গাজা থেকে ছোড়া একটি রকেট, যুদ্ধের পর এক মাসব্যাপী শান্তিকে খর্ব করেছে।

ফিলিস্তিনি জঙ্গিরা গাজা উপত্যকা থেকে বুধবার রাতে এবং বৃহস্পতিবার ভোরে ইসরাইলের দিকে দুটি রকেট নিক্ষেপ করেছে এবং ইসরাইলি বিমান হামাস-শাসিত ছিটমহল সমুদ্র উপকূলে জঙ্গি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত করেছে। ইসরাইলি সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, একটি রকেট দক্ষিণ ইসরাইলি শহর সেডরোটে অবতরণ করে, এবং অন্যটি তার আগেই গাজায় গিয়ে পড়ে। এই স্থানটি ঘন ঘন আক্রমণের লক্ষ্যবস্তু হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার ভোরের দিকে, ইসরাইলি যুদ্ধবিমানগুলি মধ্য গাজা উপত্যকায় বিমান হামলা চালায় । সক্রিয়বাদীদের সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে বাতাসে ধোঁয়া উড়তে দেখা গেছে। ইসরাইলি সামরিক বাহিনী বলেছে যে বিমান হামলার লক্ষ্য ছিল জঙ্গিদের একটি স্থান এবং একটি সুড়ঙ্গের প্রবেশপথ যা একটি ভূগর্ভস্থ কমপ্লেক্সের দিকে নিয়ে যায়। সেখানে রকেট তৈরির জন্য রাসায়নিক দ্রব্য রাখা হয়।

ইসরাইলি পুলিশ জানিয়েছে, কয়েক ডজন মুখোশধারী বিক্ষোভকারী বৃহস্পতিবার ভোরে আল-আকসা মসজিদে লুকিয়ে ছিল, তাঁরা দরজা সিল করে দেয় এবং ঢিল ও আতশবাজি নিক্ষেপ শুরু করে। পুলিশ কোন বিশদ বিবরণ ছাড়াই জানায় যে তারা "দাঙ্গা ছত্রভঙ্গ করার উপায়" ব্যবহার করে ফিলিস্তিনিদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করেছিল এবং তাদের বাহিনী মসজিদে প্রবেশ করেনি।

XS
SM
MD
LG