অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

শেয়ারের দরপতনে পাসওয়ার্ড শেয়ার বন্ধ, বিজ্ঞাপনের কথা ভাবছে নেটফ্লিক্স


ফাইল ছবি, এপি: ক্যালিফোর্নিয়ায় নেটফ্লিক্সের সদর দপ্তর , ২৯ জানুয়ারি ২০১০।

নেটফ্লিক্সের গ্রাহক সংখ্যা অপ্রত্যাশিতভাবে কমে যাওয়ায় বুধবার কোম্পানীটির শেয়ারের বড় রকমের দরপতন ঘটে। যার ফলে কোম্পানীটি বিজ্ঞাপন দেখানো এবং বিনামূল্যে তাদের পরিষেবা গ্রাহক লক্ষ লক্ষ মানুষ, যারা বন্ধু বা পরিবারের সদস্যদের পাসওয়ার্ডটি ব্যবহার করেন, তাদের সেবাদান বন্ধ করে দেওয়ার কথা বিবেচনা করছে।

অপ্রত্যাশিতভাবে ২,০০,০০০ গ্রাহক কমে যাওয়ায় বিনিয়োগকারীরা শঙ্কিত হয়ে পড়েন। তাদেরকে ২৫ লক্ষ গ্রাহক বৃদ্ধির আশা করার কথা জানিয়েছিল কোম্পানী। খবরটি ছড়িয়ে পড়লে নেটফ্লিক্সের শেয়ারের দাম ৩৫% কমে যায়। ২০১৮ সালের শুরুর পরে এটিই তাদের শেয়ারের সর্বনিম্ন মূল্য।

নেটফ্লিক্সের অনুমান অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী প্রায় ১০ কোটি বাসায় তাদের পরিষেবা বিনামূল্যে ব্যবহার করা হয়। সে হিসেবে তাদের পরিষেবা ব্যবহারকারীদের মধ্যে প্রতি তিনজনে একজন সেটি বিনামূল্যে ব্যবহার করছেন। মঙ্গলবার শেয়ারহোল্ডারদের সাথে আলাপকালে নেটফ্লিক্সের সহ-প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, রিড হেস্টিংস বলেন, “তাদের থেকে আমাদের কিছুটা হলেও আয় করতে হবে।”

তবে, ইতোমধ্যেই লাতিন আমেরিকায় নেটফ্লিক্স এমন ধরণের কার্যক্রম নিয়ে গবেষণা করছে, যার মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন না করা ব্যবহারকারীদের কৌশলে গ্রাহক হতে উদ্বুদ্ধ করা হয়। উদাহরণস্বরূপ, কোস্টা রিকায় নেটফ্লিক্সের মাসিক প্ল্যানগুলো ৯ থেকে ১৫ ডলারের মধ্যে হয়ে থাকে। তবে গ্রাহকরা প্রতি মাসে ৩ ডলারের বিনিময়ে তাদের বাসার বাইরে আরও দুইজনের জন্য সাব-অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারেন। মঙ্গলবার হেস্টিংস ইঙ্গিত দিয়েছেন যে, কোম্পানীটি অন্যান্য অঞ্চলেও একইরকম কিছু করতে পারে।

তবে, ঠিক কিভাবে নেটফ্লিক্স এমন ব্যবহারকারীদের বাধা দিবে তা পরিষ্কার নয়। হেস্টিংস ইঙ্গিত করেছেন যে, খুব সম্ভবত কোম্পানীটি আগামী বছর ধরে বিভিন্ন উপায়গুলোকে মূল্যায়ন করবে। গত বছর করা এক পরীক্ষায়, নেটফ্লিক্স তাদের ব্যবহারকারীদের ইমেইল বা এসএমএস ব্যবহার করে নিজেদের অ্যাকাউন্টটি যাচাই করতে বলেছিল।

বর্তমানের কিছু ব্যবহারকারী বলছেন যে, পাসওয়ার্ড শেয়ার করা বন্ধের সামান্য চেষ্টাতেও তারা নেটফ্লিক্স ব্যবহার করা বন্ধ করে দিবেন।


XS
SM
MD
LG