অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মারিউপোলে বিজয় ঘোষণা করলেন পুতিন


মারিউপোলের একটি নাট্য থিয়েটারের ভেতরের দৃশ্য। ৪ এপ্রিল ২০২২ এ মারিউপোলে লড়াইয়ে থিয়েটারটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। (ফাইল ফটো)

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন প্রায় দুই মাসের লড়াইয়ের পর ইউক্রেনের অবরুদ্ধ মারিউপোল বন্দরনগরীকে “মুক্ত” ঘোষণা করেছেন। যদিও, ইউক্রেনের যোদ্ধা ও বেসামরিক মানুষের হাতে থাকা ঐ শহরের বিশালাকৃতির অ্যাজভস্টল ইস্পাত কারখানাটিতে এখনও প্রবেশ করতে পারেনি রুশ বাহিনী।

তবে, কারখানাটিতে হামলা না চালিয়ে সেটি অবরুদ্ধ করে রাখতে আদেশ করেছেন পুতিন। তিনি সেটিকে এমনভাবে অবরুদ্ধ করতে বলেন “যাতে সেখানে একটি মাছিও না ঢুকতে পারে।” পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন এই কৌশল রুশ সৈন্যদের জীবন রক্ষা করবে এবং কারখানার ভেতরে অবস্থানকারী যোদ্ধা ও বেসামরিক মানুষজনকে অনাহারে ফেলবে।

অপরদিকে, ইউক্রেনের কর্মকর্তারা বলছেন যে, মারিউপোলের আশপাশে গণকবরের প্রমাণ বের হয়ে এসেছে। স্যাটেলাইটের মাধ্যমে দৃশ্যধারণকারী, যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাক্সার টেকনোলজিস কোম্পানীর ছবি থেকে, মানহুশ শহরে অন্তত ২০০ নতুন কবর প্রতীয়মান হয়েছে।

এদিকে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি বৃহস্পতিবার বিশ্বব্যাংককে বলেন যে, তার দেশের প্রতি মাসে ৭০০ কোটি ডলার পর্যন্ত সহায়তা প্রয়োজন। এছাড়াও রাশিয়ার আক্রমণ থেকে পুনরুদ্ধারের জন্যও হাজার হাজার কোটি ডলারের প্রয়োজন বলে জানান তিনি।

এদিকে, বৃহস্পতিবার ইউক্রেনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের আরও ৮০ কোটি ডলারের সামরিক সহায়তার অনুমোদন দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি বলেন যে, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের আট সপ্তাহব্যাপী এই আক্রমণের বিরুদ্ধে, ইউক্রেনের লড়াইয়ে সহায়তা করার সঙ্কল্পে যুক্তরাষ্ট্র এবং পশ্চিমা মিত্ররা ঐক্যবদ্ধ।

বাইডেন বলেন, “সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজটি হল [রাশিয়ার বিরুদ্ধে] বিশ্বকে এক করে রাখা”। তিনি জানান সে বিষয়ে এখনও পর্যন্ত সব ঠিকঠাকই চলছে।

পুতিন “সমগ্র ইউক্রেন দখল করতে কখনও সফল হবেন না” বলে অঙ্গীকার করে বাইডেন আরও বলেন, “যুদ্ধক্ষেত্রে তার ব্যাপক উচ্চাকাঙ্ক্ষা অর্জনে তিনি ব্যর্থ হয়েছেন। কিয়েভ এখনও টিকে আছে।”


XS
SM
MD
LG