অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রাশিয়ার ভাড়াটে সৈনিককে অপহরণ করার দাবি করেছে মালির চরমপন্থী গ্রুপ


ফরাসি সেনাবাহিনীর একটি ড্রোন নজরদারি ভিডিও থেকে প্রাপ্ত এই স্ক্রিন সটে দেখা যাচ্ছে, রাশিয়ান ভাড়াটেরা উত্তর মালির গোসিতে একটি ঘাঁটির কাছে কিছু মৃতদেহ দাফন করছে। ২২ এপ্রিল, ২০২২।

বামাকো — মালিতে আল-কায়েদা-সংশ্লিষ্ট জঙ্গিরা বলছে, তারা রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে জড়িত সন্দেহে বেসরকারী সামরিক সংস্থা ওয়াগনার গ্রুপের কমপক্ষে একজন রাশিয়ান ভাড়াটে সৈনিককে আটক করেছে।

আল-কায়েদার সাথে যুক্ত চরমপন্থীরা এক বিবৃতিতে বলেছে, তারা কমপক্ষে রাশিয়ার একজন ভাড়াটে সৈন্যকে অপহরণ করেছে, যাকে তারা "রাশিয়ান ওয়াগনার বাহিনীর সৈনিক" হিসাবে বর্ণনা করেছে।

ওই বিবৃতিটির আরবি সংস্করণে গোষ্ঠীটি দাবি করেছে, তারা একজন রুশ যোদ্ধাকে অপহরণ করেছে, যাকে তারা "অপরাধী" বলে অভিহিত করেছে। কিন্তু ফরাসি সংস্করণ বলেছে, কেবল একজনকে নয়, তারা আটক করেছে একাধিক ব্যক্তিকে।

বিবৃতিতে আরও দাবি করা হয়েছে, ওয়াগনার বাহিনী মালির মৌরাতে একটি অভিযানে অংশ নিয়েছিল, এবং ওই অভিযানে "শত শত নিরপরাধ মানুষকে হত্যা করা হয়েছে।"

বেশ কয়েকটি দেশ মালির সামরিক সরকারকে ওয়াগনার গ্রুপের বাহিনীর সাথে কাজ করার জন্য দোষারোপ করেছে। ওয়াগনার গ্রুপ একটি ছায়া প্রাইভেট কোম্পানি যারা লিবিয়া, সিরিয়া এবং মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রসহ বেশ কয়েকটি দেশে রাশিয়ার ভাড়াটে সৈন্য সরবরাহ করেছে।

তবে মালির সরকার ওয়াগনার গ্রুপের সাথে তাদের কোনো যোগসূত্র থাকার কথা অস্বীকার করে বলেছে, তারা শুধুমাত্র সরকারি ভাবে "রুশ প্রশিক্ষকদের" সাথে কাজ করে।

উগ্রপন্থীদের বিবৃতিতে উল্লিখিত মৌরা সামরিক অভিযানটি নিয়ে হিউম্যান রাইটস ওয়াচও একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল।

ওই প্রতিবেদনে প্রত্যক্ষদর্শীদের উদ্ধৃতি দেওয়া হয়েছে, যারা বলেছে মালির সেনাবাহিনীর সাথে কাজ করা "শ্বেতাঙ্গ সৈন্যরা" পাঁচ দিনের অভিযানে কমপক্ষে ৩০০ বেসামরিক লোককে হত্যা করেছে, যাদের মধ্যে কিছু সন্দেহভাজন ইসলামপন্থী যোদ্ধাও ছিল।

XS
SM
MD
LG