অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশ ও ভারতের ‘নলেজ পার্টনার’ হিসেবে কাজ করার আহবান প্রতিমন্ত্রী পলকের


তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক

স্মার্ট বাংলাদেশ ও ত্রিপুরা বিনির্মাণে, বাংলাদেশ ও ভারত পার্টনার হিসেবে কাজ করতে আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

২০৪১ সালের স্মার্ট বাংলাদেশের সম্ভাবনার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, “সেই স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের সাথে, স্মার্ট ত্রিপুরা বিনির্মাণে আমরা দুই দেশ এক সাথে নলেজ পার্টনার হিসেবে কাজ করতে চাই। আমাদের যেহেতু একই রকম আবহাওয়া, পরিবেশ ও সংস্কৃতি রয়েছে তাই আমরা চাইলেই একসঙ্গে মিলে উদ্ভাবনী জাতি গঠনে, স্মার্ট শিক্ষা, স্বাস্থ্য সেবা, কৃষি, পরিবেশ; এই সকল বিষয়ে নীতি প্রণয়ন করতে পারি।”

বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) রাতে, ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলায়, হোটেল পোলো টাওয়ারে অনুষ্ঠিত ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ আইটি বিজনেস সামিট’এ পলক এই সব কথা বলেন।

এ সময়, প্রতিমন্ত্রী পলক, ত্রিপুরায় ২০ হেক্টর জায়গা জুড়ে যে বিশেষ অর্থনৈতিক জোন তৈরি করা হচ্ছে, বাংলাদেশের আইসিটি শিল্পের উদ্যোক্তারা সেখানে বিনিয়োগ করতে পারে বলে আভাস দেন। তিনি বলেন, “মাত্র ১৩ বছরের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তার সততা, দূরদর্শীতা ও সাহসিকতা দিয়ে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের ডিজিটাল বাংলাদেশে রূপান্তরিত করেছেন।”

বাংলাদেশের আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, “বাংলাদেশ ও ভারত দুই দেশের মধ্যে আন্তরিকতা ও বন্ধুত্বপূর্ণ এবং বিশ্বাসের সম্পর্ক রয়েছে। আমরা সেটা আরও ঘনিষ্ট ও শক্তিশালী করে, এক সঙ্গে এগিয়ে যেতে চাই।”

বাংলাদেশের আইসিটি বিভাগের, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ ও আগরতলা হাইকমিশনের যৌথভাবে এ আইটি সম্মেলনের আয়োজন করে। ‘ডিজিটাল বাংলদেশ টু স্মার্ট বাংলাদেশ’ শীর্ষক এই সম্মেলনের প্রধান অতিথি ছিলেন, ত্রিপুরা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব।বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, ত্রিপুরার তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর এবং যুব ও ক্রীড় মন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী; স্বরাষ্ট্র, কারা ও অগ্নি নির্বাপন মন্ত্রী রাম প্রাসাদ পাল এবং হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিকর্ণ কুমার ঘোষ।

স্বাগত বক্তব্য দেন, ভারতের ত্রিপুরায় নিযুক্ত বাংলাদেশের সহকারি হাইকমিশনার আরিফ মোহাম্মাদ। অনুষ্ঠানে, ত্রিপুরার আইটি শিল্পের সম্ভাবনার ওপর আলোকপাত করেন, ত্রিপুরা রাজ্য সরকারের শিল্প বাণিজ্য তথা তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগের মুখ্য সচিব পুনিত আগারওয়াল।

XS
SM
MD
LG