অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

গ্র্যামি–জয়ী দ্য জাডসের গায়িকা নাওমি জাড ৭৬ বছর বয়সে মারা গেছেন


ক্যালিফোর্নিয়ার বেভারলি হিলসের বেভারলি হিলটন হোটেলে হিরো ডগ অ্যাওয়ার্ডে ছবির জন্য পোজ দিচ্ছেন নাওমি জাড। ৬ অক্টোবর ২০১২। তার পরিবার ৩০ এপ্রিল (২০২২) তার মৃত্যুর ঘোষণা দেয়। তার বয়স ছিল ৭৬।

গ্র্যামি–জয়ী জুটি দ্য জাডসের গায়িকা নাওমি জাড ৭৬ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেছেন। নাওমি জাড কেন্টাকিতে জন্মগ্রহণ করেন এবং তিনি ওয়াইনোনা ও অ্যাশলে জাডের মা।

অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে দেওয়া এক বিবৃতিতে, তার মেয়েরা শনিবার (৩০ এপ্রিল) তার মৃত্যুর ঘোষণা দিয়েছেন।

“আজ আমরা দুই বোন এক বেদনাদায়ক পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছি। আমরা আমাদের মাকে হারিয়েছি। তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ ছিলেন”, বিবৃতিতে বলা হয়েছে। “আমরা ভেঙে পড়েছি। আমরা গভীর শোকে নিমজ্জিত এবং আমরা জানি, আমরা যেমন তাকে ভালোবাসতাম, জনসাধারণও তাকে ততটা ভালোবাসতেন”।

নাওমি জাড টেনেসির ন্যাশভিলের কাছে মারা যান। তার স্বামী ও সহশিল্পী ল্যারি স্ট্রিকল্যান্ডের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, তার মৃত্যুর বিষয়ে আর কোনো বিশদ বর্ণনা প্রকাশ করা হবে না এবং বিবৃতিতে তার শোকাহত পরিবারের স্বার্থে গোপনীয়তা রক্ষার অনুরোধ করা হয়েছে।

গায়ক মারেন মরিস শনিবার টুইটারে পোস্ট করেছেন, “মাত্র কয়েক সপ্তাহ আগে ‘লাভ ক্যান বিল্ড এ ব্রিজ’ উপভোগ করতে পেরে সম্মানিত বোধ করছি আমি”।

“এটা হৃদয়বিদারক খবর! নাওমি জাড ছিলেন আমার পরিচিত সবচেয়ে মধুর ব্যক্তিদের মধ্যে একজন”, গায়ক ট্র্যাভিস ট্রিট টুইটারে পোস্ট করেছেন। পোস্টে তিনি উল্লেখ করেছেন যে, তিনি জাডের সঙ্গে পর্দায় ও মঞ্চে বেশ কয়েকবার কাজ করেছেন।

প্রায় তিন দশকে মা–মেয়ের গাওয়া প্রায় ১৪টি গান তালিকায় শীর্ষস্থানে ছিল। কান্ট্রি মিউজিকে সাফল্যের শিখরে ওঠার পর, ১৯৯১ সালে নাওমি জাড হেপাটাইটিস রোগে আক্রান্ত হওয়ায় তারা গান ছেড়ে দেন। ওয়াইনোনা একক শিল্পী হিসেবে কর্মজীবন অব্যাহত রাখেন।

কেনটাকির অ্যাশল্যান্ডে জন্মগ্রহণকারী নাওমি যার আসল নাম ডায়ানা এলেন জাড, ন্যাশভিলে একজন নার্স হিসেবে কাজ করতেন। তিনি ও ওয়াইনোনা পেশাদারভাবে এক সঙ্গে গান গাইতে শুরু করেন।

দ্য জাডস ১৯৮৪ ও ১৯৯১ সালের মধ্যে ছয়টি অ্যালবাম এবং একটি ইপি প্রকাশ করে এবং নয়টি কান্ট্রি মিউজিক অ্যাসোসিয়েশন অ্যাওয়ার্ড ও একাডেমি অফ কান্ট্রি মিউজিক থেকে সাতটি পুরষ্কার জেতে। তারা “হোয়াই নট মি” এবং “গিভ এ লিটল লাভ”-এর মতো হিট গানের জন্য মোট পাঁচটি গ্র্যামি পুরস্কার জেতেন।

কন্যা অ্যাশলে জাড একজন অভিনেতা, যিনি “কিস দ্য গার্লস”, “ডাবল জেপার্ডি” এবং “হিট”–এর মতো চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।

এলভিস প্রিসলির ব্যাকআপ গায়ক স্ট্রিকল্যান্ড ও নাওমি ৩২ বছর ধরে বিবাহিত জীবনে আবদ্ধ ছিলেন।

XS
SM
MD
LG