অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মারিউপোলের মেয়র বলেছেন, শহরে ১ লাখ নাগরিক রয়ে গেছে


ইউক্রেনের মারিউপোলের একজন বাসিন্দা ইউক্রেন-রাশিয়া সংঘর্ষের সময় ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত একটি অ্যাপার্টমেন্ট ভবনের কাছে বেঞ্চে বসে আছেন। ২ মে, ২০২২।

মঙ্গলবার ইউক্রেনের অবরুদ্ধ শহর মারিউপোলের মেয়র বলেছেন, শহরে ১ লাখ নাগরিক রয়ে গেছে, যে সময় ইউক্রেনীয় কর্মকর্তারা বোমা বিধ্বস্ত ইস্পাত প্ল্যান্ট ছেড়ে আসা প্রথম দলটির আগমনের অপেক্ষায় ছিলেন।

মেয়র ভাদিম বয়চেঙ্কো বলেছেন, এখনো শহরে অবস্থানরত কিছু বেসামরিক নাগরিক আজভস্টাল লোহা ও ইস্পাতের কারখানার নিচে বাঙ্কার এবং টানেলে আটকে আছে। আনুমানিক ২ হাজার ইউক্রেনীয় সেনা সেখানে লুকিয়ে আছে।

সোমবার ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্র কুলেবা বলেছেন, শুধুমাত্র বেসামরিক ব্যক্তিরা এখন পর্যন্ত প্ল্যান্ট ছেড়ে যেতে সক্ষম হয়েছে এবং ইউক্রেনের সরকার এর ভেতরে লুকিয়ে থাকা সৈন্যদের সরিয়ে নেওয়ার জন্য আলোচনার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। উদ্ধারকৃত বেসামরিক ব্যক্তিরা ২শ কিলোমিটার দূরে জাপোরিঝিয়ায় যাচ্ছে, যদিও তাদের অগ্রগতি ধীর বলে জানা গেছে।

সোমবার রাশিয়ার সামরিক বাহিনী বলেছে, স্টিল মিল থেকে বের হয়ে আসা ৬৯ জন ইউক্রেন নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে যাবার সিদ্ধান্ত নেয়, অন্য ৫৭ জন রাশিয়া নিয়ন্ত্রিত এলাকায় অবস্থান করতে চেয়েছে।

ইউক্রেন এর আগে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ইউক্রেনীয়দের তাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে রাশিয়ায় নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করেছে। মস্কো এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

সোমবার ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি গ্রিসের রাষ্ট্রীয় টিভিকে বলেছেন, ইস্পাত কারখানার অবশিষ্ট বেসামরিক ব্যক্তিরা বাসে উঠতে ভয় পাচ্ছিলেন কারণ তাদের ধারণা ছিল তাদেরকে রাশিয়ায় নিয়ে যাওয়া হবে।

ভয়েস অফ আমেরিকার জেফ সেল্ডিন এ প্রতিবেদন তৈরিতে সহায়তা করেছেন। এ প্রতিবেদনের কিছু তথ্য এপি,এএফপি এবং রয়টার্স থেকে নেয়া হয়েছে।

XS
SM
MD
LG