অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারগুলো যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে বোয়িং-এর মীমাংসাকে চ্যালেঞ্জ করেছে


ইথিওপিয়ান ফেডারেল পুলিশ অফিসারেরা ইথিওপিয়ান এয়ারওয়েজ পরিচালিত একটি বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স বিমানের দুর্ঘটনাস্থলে নিহতদের স্মৃতিতে নির্মিত ফুলেল সৌধের পাশে দাঁড়িয়ে আছে। ইথিওপিয়া, ১৬ মার্চ, ২০১৯।

২০১৮ সালের অক্টোবর এবং ২০১৯ সালের মার্চে দুটি বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবার মঙ্গলবার টেক্সাসের একজন বিচারককে বিমান প্রস্তুতকারক এবং যুক্তরাষ্ট্র সরকারের মধ্যকার ২৫০ কোটি ডলারের সমঝোতা বাতিল করতে বলেছে।

সেই চুক্তির অধীনে ইন্দোনেশিয়া এবং ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সে লায়ন এয়ারের মারাত্মক দুর্ঘটনার বিচারপ্রক্রিয়ায় কিছু অভিযোগ বাদ দেয়ার বিনিময়ে জালিয়াতি করা হয়েছে বলে স্বীকার করে বোয়িং। দুর্ঘটনায় মোট ৩৪৬ জন নিহত হয়েছে এবং ম্যাক্সকে বিশ্বব্যাপী ২০ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়।

মঙ্গলবার টেক্সাসের ফোর্থ ওয়ার্থে একটি আদালতের শুনানির মূল বিষয় ছিল ২০২১ সালের ৭ জানুয়ারির সমঝোতা।

২০১৯ সালের ১০ মার্চ আদ্দিস আবাবার কাছে ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ২৮ বছর বয়সী এক নারীর ফরাসী মা ক্যাথরিন বার্থেট বলেছেন, “তারা ঐ অপরাধকে নরহত্যা না বলে জালিয়াতি আখ্যা দিয়ে তালগোল পাকিয়েছে।”

২০২১ সালের জানুয়ারির চুক্তিতে নিহতদের আত্নীয়দের মধ্যে ৫০ কোটি ডলারের ক্ষতিপূরণ তহবিল, এয়ারলাইনগুলোকে ১৭৭ কোটি ডলারের ক্ষতিপূরণ এবং ২৪ কোটি ৩০ লাখ ডলারের ফৌজদারি জরিমানা অন্তর্ভুক্ত ছিল।

বোয়িং স্বীকার করেছে যে, তাদের দুইজন কর্মচারী ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের মধ্যকার একটি দলকে বিভ্রান্ত করেছিল। ঐ দলটি বোয়িং-এর নতুন এমসিএএস ফ্লাইট সফটওয়্যার ব্যবহার করার জন্য বিমান চালকদের প্রশিক্ষণ দেয়ার কথা ছিল। সফটওয়্যারটি উভয় দুর্ঘটনায় জড়িত ছিল।

নিহতদের স্বজনেরা এখন ফোর্ট ওয়ার্থের বিচারকের কাছ থেকে দ্রুত সিদ্ধান্তের আশা করছেন।

XS
SM
MD
LG