অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রুশ গাড়ি প্রস্তুতকারকের কাছে গাড়ির যন্ত্রাংশ বিক্রির সুযোগ পেয়েছে ইরান


তেহরানের কাছে ইরানের গাড়ি নির্মাণকারী শ্রমিকরা রাষ্ট্রচালিত ইরান খোদ্রো অটোমোবাইল উৎপাদন প্ল্যান্টে একটি গাড়ির অংশগুলো ঢালাই করছে। ২০ এপ্রিল, ২০১১। ফাইল ছবি।

ইরানের গাড়ির যন্ত্রাংশ প্রস্তুতকারকদের সিন্ডিকেটের একজন সদস্য বলেছেন, ইরানি উৎপাদকদের কাছে তাদের পণ্য রুশ গাড়ী প্রস্তুতকারকের কাছে রপ্তানির সুযোগ রয়েছে।ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানায়।

সোমবারের দিনের শেষে এক প্রতিবেদনে হোসেইন বাহরাইনিয়ানকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, “একজন বিশিষ্ট গাড়ি নির্মাতা” ইরানের কাছ থেকে যন্ত্রাংশের জন্য অনুরোধ করেছেন। তিনি নির্মাতার নাম বলেননি।তিনি বলেছেন, ওই বিশিষ্ট গাড়ি নির্মাতা ব্রেক যন্ত্রাংশ, এয়ারব্যাগ, এয়ার কন্ডিশনার যন্ত্রাংশ এবং অন্যান্য সরঞ্জামের জন্য অনুরোধ করেছেন।

ইরান এবং রাশিয়া উভয়েই যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার অধীনে রয়েছে তবে ইরানের গাড়ি এবং গাড়ির যন্ত্রাংশ রপ্তানি নিষেধাজ্ঞার অধীন নয়।

ইরানে গাড়ি আমদানিও নিষেধাজ্ঞার অধীন নয়। তবে, ইরান ও বিশ্বশক্তির মধ্যকার একটি পারমাণবিক চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্র নিজেকে প্রত্যাহার এবং ইরানের ওপর তেল ও ব্যাংকিং নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার পরে ২০১৮ সাল থেকে তেহরান গাড়ি আমদানি করেনি। ইউক্রেন আক্রমণের পর পশ্চিমা দেশগুলো রাশিয়ায় রপ্তানি বন্ধ করে দেয়।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ইরান রাশিয়ায় গাড়ির রেডিয়েটর এবং সাসপেনশন সিস্টেম রপ্তানি করেছে। অতীতে ইরাক, সিরিয়া এবং ভেনিজুয়েলায় গাড়ি রপ্তানি করতো ইরান।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিশেষ করে ২০১১ সালে রাশিয়ার সহায়তায় ইরানের একমাত্র পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র চালু হওয়ার পর তেহরান এবং মস্কোর মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে।

পৃথক এক খবরে মঙ্গলবার ইরান বলেছে, ইউক্রেন যুদ্ধে তারা মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা পালন করেছে।

XS
SM
MD
LG