অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

অবিলম্বে ইউক্রেনে সহিংসতা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে ফ্রান্স এবং ভারত


ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো (বাঁয়ে) প্যারিসের এলিসি প্যালেসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে স্বাগত জানাচ্ছেন। ৪ মে, ২০২২।

বুধবার ভারত ও ফ্রান্স ইউক্রেনে “অবিলম্বে সহিংসতা বন্ধ করার” আহ্বান জানিয়েছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রাশিয়ার তার প্রতিবেশী দেশে আক্রমণের নিন্দা করা থেকে আবার বিরত থেকেছেন।

দীর্ঘকাল ধরে রাশিয়া থেকে ভারত বেশিরভাগ সামরিক সরঞ্জাম আমদানি করে আসছে তাই ভারত পশ্চিম ও মস্কোর মধ্যে একটি কূটনৈতিক ভারসাম্য বজায় রেখে চলেছে। বিশেষ করে ইউক্রেনে রাশিয়ার কর্মকাণ্ডের জন্য জাতিসংঘে রাশিয়াকে নিন্দা করা বা দেশটির বিপক্ষে ভোট দেয়া থেকে বিরত থেকেছে।

মোদী এবং ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ প্যারিসে আলোচনা এবং নৈশভোজের জন্য মিলিত হওয়ার পরে এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, “ ইউক্রেনে মানবিক সংকট এবং চলমান সংঘাতের বিষয়ে ফ্রান্স এবং ভারত তাদের গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছে।“

তবে কেবলমাত্র ফ্রান্স “ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রুশ বাহিনীর বেআইনি ও অযৌক্তিক আগ্রাসনের” নিন্দা জানিয়েছে।

দেশ দুটি বলেছে, এই সংঘাতে বিশ্বব্যাপী খাদ্য সংকটকে তীব্রতর হওয়ার ঝুঁকির ফলে তারা “একটি সমন্বিত এবং বহুপাক্ষিক উপায়ে সাড়া দেবে।” ইউক্রেন এবং রাশিয়া বিশ্বের প্রধান গম উৎপাদনকারী দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম।

ফ্রান্সের কর্মকর্তারা আরও বলেন, রাশিয়ার অস্ত্র ও জ্বালানি থেকে ভারতীয়দের দূরে রাখতে ফ্রান্স “তাদের সরবরাহে বৈচিত্র্য আনতে সাহায্য করতে” চায়।

সোমবার ইউরোপ সফররত মোদী বার্লিনে জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শোলজের সাথে সাক্ষাতের পর সংবাদাতাদের বলেন যে, “এই যুদ্ধে কেউ বিজয়ী হবে না বরং সবাই হেরে যাবে।”

XS
SM
MD
LG