অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রাশিয়ার আদালত শীর্ষ এক সাংবাদিকের অনুপস্থিতিতে গ্রেপ্তারের আদেশ দিয়েছে


রাশিয়ান সাংবাদিক আলেকজান্ডার নেভজোভের ইনস্টাগ্রাম থেকে নেয়া হয়েছে এই ছবিটি। তবে কোন সনে এই ছবি তোলা হয়েছে সে তথ্য দেয়া হয়নি।

মস্কোর একটি আদালত শুক্রবার আলেকজান্ডার নেভজোরভের অনুপস্থিতিতে তাঁকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছে। আলেকজান্ডার নেভজোরভ রাশিয়ার একজন বিশিষ্ট সাংবাদিক। ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ার আগ্রাসনের তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে রাশিয়া তাঁকে অভিযুক্ত করেছে। রাশিয়ার মতে সেটি মিথ্যা তথ্য এবং রাশিয়া এটিকে তাদের বিশেষ সামরিক অভিযান বলে অভিহিত করে ।

আদালত বলেছে যে নেভজোরভ, যাকে রাশিয়ার আন্তর্জাতিক ওয়ান্টেড তালিকায় রাখা হয়েছে, সে যদি কখনও রাশিয়ায় ফিরে আসে বা তাকে প্রত্যর্পণ করা হয় তা’হলে তাকে দুই মাসের জন্য আটকে রাখা হবে।

নেভজোরভের স্ত্রী মার্চ মাসে ইনস্টাগ্রামে লিখেছিলেন যে তিনি এবং তার স্বামী ইসরাইলে ছিলেন, তবে এই দম্পতির স্থায়ীভাবে সেখানে থাকার কোনও পরিকল্পনা নেই।

তদন্তকারীরা মার্চ মাসে নেভজোরভের বিরুদ্ধে একটি মামলা জারি করেন , তাদের চোখে পড়েছিল যে নেভজোরভ তার একটি সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্টে বলেছেন, রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনী ইচ্ছাকৃতভাবে ইউক্রেনের মারিউপোল শহরের একটি প্রসূতি হাসপাতালে গোলা বর্ষণ করেছে।

ইউক্রেন এবং তার পশ্চিমা মিত্ররা হাসপাতালে হামলাকে নৃশংসতা বলে নিন্দা করেছে। রাশিয়া হাসপাতালে বোমা হামলার বিষয়টি অস্বীকার করেছে, কিয়েভকে "সাজানো উস্কানি" দেওয়ার জন্য অভিযুক্ত করেছে।

নেভজোরভ, যার ইউটিউব চ্যানেলে ১৮ লাখেরও বেশি গ্রাহক রয়েছে, তার বিরুদ্ধে তদন্তকে তিনি হাস্যকর বলে অভিহিত করেছেন এবং রাশিয়ার শীর্ষ তদন্তকারীকে একটি খোলা চিঠি লিখেছেন যাতে মামলাটি বন্ধ করার আহ্বান জানানো হয়।

২৪শে ফেব্রুয়ারী ইউক্রেন আক্রমণের আট দিন পরে, রাশিয়া, রাশিয়ার সামরিক বাহিনী সম্পর্কে ইচ্ছাকৃতভাবে "ভুয়া" খবর ছড়ানোর জন্য দোষী সাব্যস্ত ব্যক্তিদের ১৫ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান রেখে একটি আইন পাস করেছে।

XS
SM
MD
LG