অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনি আমেরিকান সাংবাদিক হত্যার নিন্দা করেছে যুক্তরাষ্ট্র, জাতিসংঘ


ইসরাইলের হাইফাতে বিক্ষোভকারীরা নিহত আল জাজিরার সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহের ছবি ধারণ করে স্লোগান দিচ্ছে। ১১ মে, ২০২২।

পশ্চিম তীরে ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর অভিযানের খবর সংগ্রহ করার সময় আল জাজিরার এক সাংবাদিককে হত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ও জাতিসংঘ।

শিরিন আবু আকলেহ (৫১) একজন ফিলিস্তিনি আমেরিকান, জেনিন শহরে থাকাকালীন একজন সাংবাদিক হিসাবে পরিচিত হওয়া সত্ত্বেও তাকে গুলি করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্র পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র নেড প্রাইস টুইট করেছেন, "পশ্চিম তীরে আমেরিকান সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহের হত্যাকাণ্ডে আমরা গভীর ভাবে মর্মাহত এবং এর তীব্র নিন্দা জানাই।"

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক কার্যালয়ও টুইট করে বলেছে তারা এই হত্যাকান্ডে "মর্মাহত " হয়েছে।

এ দিকে ইউনেস্কোর মহাপরিচালক অড্রে আজোলে এই হত্যাকাণ্ডের তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “আমি শিরিন আবু আকলেহর হত্যার নিন্দা করছি। একটি সংঘাতপূর্ণ এলাকায় স্পষ্টভাবে চিহ্নিত সংবাদ কর্মীকে হত্যা করা আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন। আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে এই অপরাধের তদন্ত করে, অবিলম্বে দায়িদের বিচারের আওতায় আনার আহ্বান জানাচ্ছি।”

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস এবং আল জাজিরা আবু আকলেহের মৃত্যুকে ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর দ্বারা নির্লজ্জ, ঠান্ডা মাথার হত্যা বলে বর্ণনা করেছেন।

অন্যদিকে, ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট বলেছেন, ইসরাইল ওই ঘটনার "পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত" করার আগেই, আব্বাস ভিত্তিহীন অভিযোগ করছেন।

বেনেট এক বিবৃতিতে বলেছেন, "সম্ভবত মনে হচ্ছে সশস্ত্র ফিলিস্তিনিরা - যারা সেই সময় নির্বিচারে গুলি চালাচ্ছিল – তারাই সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহর দুর্ভাগ্যজনক মৃত্যুর জন্য দায়ী ।"

[এই প্রতিবেদনের জন্য কিছু তথ্য রয়টার্স থেকে নেয়া হয়েছে]

XS
SM
MD
LG