অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইরানের সাথে পরমাণু আলোচনার বিষয়ে ইইউ’র আশাবাদ


ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত এই ছবিতে, এনরিক মোরা, যিনি বিশ্বশক্তির সাথে ইরানের পারমাণবিক চুক্তি পুনরুজ্জীবিত করার জন্য আলোচনার ইউরোপীয় ইউনিয়ন সমন্বয়কারী, তিনি ইরানের শীর্ষ পরমাণু আলোচক আলী বাঘেরি কানির সাথে করমর্দন করছেন। তেহরান, ইরান। ১১ মে, ২০২২

ইইউ-এর পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক প্রধান শুক্রবার বলেছেন, তিনি বিশ্বাস করেন যে দুই মাসের অচলাবস্থার পর পরমাণু আলোচনা পুনরায় চালু করতে এই সপ্তাহে তেহরানে তার দূত এবং ইরানি কর্মকর্তাদের মধ্যে আলোচনার সময় যথেষ্ট অগ্রগতি হয়েছে।

বিশ্ব শক্তির সাথে ইরানের ২০১৫ সালের পারমাণবিক চুক্তি পুনরুজ্জীবিত করার জন্য আলোচনা মার্চ মাস থেকে আটকে আছে, প্রধানত তেহরানের জেদের জন্য। তারা চায় যেন ওয়াশিংটন ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ড কোরকে যুক্তরাষ্ট্র অভিহিত সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকা থেকে সরিয়ে নেয়।

আলোচনার সমন্বয়কারী এনরিক মোরা ইউরোপে ফিরে আসার পর, জোসেপ বোরেল বলেন যে,”বিষয়গুলি তাদের মতো চলতে পারে না” মোরার এমন একটি বার্তা দেওয়ার পরে ইরানের প্রতিক্রিয়া "যথেষ্ট ইতিবাচক" ছিল।

জার্মানির উত্তরাঞ্চলে জি-সেভেন পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে বোরেল সংবাদদাতাদের বলেন, "এই বিষয়গুলো রাতারাতি সমাধান করা যাবে না।" আসলে " আলোচনা অবরুদ্ধ ছিল” এবং “চূড়ান্ত চুক্তিতে পৌঁছানোর সম্ভাবনায় সেগুলো এখন মুক্ত করা হয়েছে।"

অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তির বিনিময়ে ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচীকে নিয়ন্ত্রণে রাখা চুক্তিটিকে পুনরুজ্জীবিত করার লক্ষ্যে চুক্তিটির বিস্তৃত রূপরেখা সম্পর্কে মূলত মার্চ মাসে সকলে সম্মত হয়েছিল।

তবে শেষ মুহূর্তের রাশিয়ার দাবি এবং যুক্তরাষ্ট্রের বিদেশী সন্ত্রাসী সংস্থার তালিকা নিয়ে বিরোধের পরে এটি বিশৃঙ্খলার মধ্যে পড়ে গেছে।

পশ্চিমা কর্মকর্তারা মূলত এটি পুনরুত্থিত হওয়ার আশা হারাচ্ছেন। বিষয়টির সাথে পরিচিত সূত্রগুলি বলেছে, তারা ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচিকে কীভাবে সীমিত করা যায় তা নিয়ে ভাবতে বাধ্য হচ্ছে বিশেষত যখন ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণ বৃহৎ শক্তিগুলিকে বিভক্ত করেছে।

XS
SM
MD
LG