অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ম্যাথুসের সেঞ্চুরিতে প্রথম দিনটা শ্রীলঙ্কার


অ্যাঞ্জলো ম্যাথুস

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আজ থেকে শুরু হওয়া বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিন বাংলাদেশের ওপর আধিপত্য বিস্তার করেছে লঙ্কানরাই। দিনের শেষে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪ উইকেটে ২৫৮ রান। সেঞ্চুরি করেছেন অ্যাঞ্জলো ম্যাথুস।

টসে জিতে চট্টগ্রামের অনুকূল উইকেটে ব্যাটিং করতে নেমেছিল শ্রীলঙ্কা। দিনের ৪৭তম বলেই লঙ্কান অধিনায়ক দ্বিমুথ করুনারত্নের উইকেট তুলে নেন অফ স্পিনার নাঈম হাসান। মেহেদী হাসান মিরাজের বলে এই টেস্টে বাংলাদেশ দলের একাদশে সুযোগ পেয়েছেন এই নাঈম। করুনারত্নে নাঈমের বলে ব্যাকফুটে কাট করতে গিয়েছিলেন। বল মিস করে পড়ে যান এলবিডব্লুর ফাঁদে। আম্পায়ার আবেদনে সাড়া দিতে দেরি করেননি, তবে করুনারত্নে রিভিউ নিয়েছিলেন। আম্পায়ারস কল বলে সেই রিভিউ নিয়ে লাভ হয়নি।

নাঈমের কল্যাণে মধ্যাহ্ন বিরতির আগেই আরও একটি সাফল্য পেয়ে যায় বাংলাদেশ। আরেক উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ওসাদা ফার্নান্দো। নাঈমের বলে তাঁর ব্যাটে লেগ বল চলে যায় উইকেটকিপার লিটন দাসের কাছে। ফার্নান্দো রিভিউ নিয়েছিলেন। কিন্তু সেখানে পরিস্কার দেখা গেছে বল তাঁর ব্যাটের কানায় লেগেই গিয়েছিল লিটনের গ্লাভসে। ২ উইকেটে ৭৩ রান নিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় শ্রীলঙ্কা।

দ্বিতীয় সেশনটা পুরোপুরি শ্রীলঙ্কারই। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস আর কুশল মেন্ডিস বাংলাদেশের বোলারদের পাল্টা জবাবটা দিয়েছেন বেশ ভালোভাবেই। ৩২ ওভারে ৮৫ রান তুলেছিলেন তারা। প্রথম সেশনে নাঈমের ভালো বোলিং আশা জাগিয়েছিল। কিন্তু সেশনে তাইজুল ইসলাম আর সাকিব আল হাসানকে বেশ ভালোই খেলেছেন শ্রীলঙ্কার দুই ব্যাটসম্যান। দুইজনই ফিফটি পান। এই সেশনে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ দাঁড়ায় ২ উইকেটে ১৫৮। তাইজুলের বলে অবশ্য ম্যাথুসের বিরুদ্ধে আউটের জন্য আঙ্গুল তুলেছিলেন আম্পায়ার। কিন্তু রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান ম্যাথুস।

তৃতীয় সেশনে তাইজুল সাফল্য পান। তিনি ফেরান কুশল মেন্ডিসকে। তাইজুলের বলে নাঈম হাসানকে ক্যাচ দেন মেন্ডিস। আউট হওয়ার আগে তিনি করেছেন ১৩১ বলে ৫৪ রান। সাকিবও উইকেট তুলে নিয়ে আশা জাগিয়েছিলেন। ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ৬ রান করে ফেরেন মাহমুদুল হাসানের বলে ক্যাচ দিয়ে। ১৮৩ রানে ৪ উইকেট হারানো শ্রীলঙ্কাকে আবারও পথ দেখান ম্যাথুস। দিনেশ চান্ডিমালকে সঙ্গে নিয়ে তিনি দিন শেষ করেন। বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম সেঞ্চুরিটি তুলে নিতে ১৮৩ বল খেলেছেন তিনি। শেষ পর্যন্ত তিনি অপরাজিত ২০৮ বলে ১১৪ রান করে। তার ইনিংসে ছিল ১৪ বাউন্ডারি ও এক ছক্কা।। চান্দিমাল অপরাজিত আছেন ৭৭ বলে ৩৪ রানে। তৃতীয় সেশনে ১০০ রান যোগ করেছেন শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশের পক্ষে ৭১ রানে ২ উইকেট নাঈমের। একটি করে উইকেট নিয়েছেন সাকিব আল হাসান ও তাইজুল ইসলাম।

XS
SM
MD
LG