অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রাশিয়ার সাথে সম্পর্কের কারণে জার্মানির প্রাক্তন নেতা শ্রোয়েডার বিশেষ অধিকার হারালেন


তৎকালীন জার্মান চ্যান্সেলর গেরহার্ড শ্রোয়েডার (ডানে) জার্মানির বার্লিনে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে স্বাগত জানাচ্ছেন। ৮ সেপ্টেম্বর, ২০০৫। ফাইল ছবি।

জার্মানির তিনটি শাসক দল প্রাক্তন চ্যান্সেলর গেরহার্ড শ্রোয়েডারকে ইউক্রেনের যুদ্ধ সত্ত্বেও রাশিয়ার সাথে তার দীর্ঘমেয়াদী সম্পর্ক বজায় রাখায় এবং রক্ষা করায় তার দায়িত্ব এবং কর্মী বাতিল করার পরিকল্পনা করেছে।

বুধবার শ্রোয়েডারের নিজস্ব সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টি বলেছে, সংসদীয় বাজের কমিটির আইন প্রণেতারা প্রাক্তন চ্যান্সেলর হিসেবে তার মর্যাদার পরিবর্তে প্রাক্তন জার্মান নেতার কিছু সুযোগ সুবিধাকে প্রকৃত দায়িত্বের সাথে যুক্ত করতে সম্মত হয়েছেন।

তারা বৃহস্পতিবার আইন প্রণেতাদের কাছে একটি প্রস্তাব জমা দেয়ার পরিকল্পনা করেছিল।

রুশ রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত জ্বালানি সংস্থাগুলোর হয়ে কাজ করার কারণে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে শ্রোয়েডার ক্রমশ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন।

৭৮ বছর বয়সী শ্রোয়েডার রুশ রাষ্ট্রীয় জ্বালানি সংস্থা রসনেফটের তত্ত্বাবধায়ক বোর্ডের চেয়ারম্যান এবং নর্ড স্ট্রিম ও নর্ড স্ট্রিম ২ গ্যাস পাইপলাইন প্রকল্পের সাথে জড়িত।

বুচাতে সংঘটিত বেসামরিক গণহত্যার “তদন্ত করতে হবে” কিন্তু শ্রোয়েডারের দীর্ঘদিনের বন্ধু রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কাছ থেকে এমন আদেশ আসবে তা তিনি মনে করেন না- এই বছরের শুরুর দিকে নিউইয়র্ক টাইমসে শ্রোয়েডারের এমন বক্তব্য ছাপা হলে তার কার্যালয়ের কর্মীরা পদত্যাগ করেন এবং তিনি তার প্রাক্তন রাজনৈতিক মিত্রদের ক্ষোভের মুখোমুখি হন।

XS
SM
MD
LG