অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আফগানিস্তানের প্রধান বিমানবন্দরগুলি পরিচালনা করবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের কোম্পানি


তালিবানের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ভারপ্রাপ্ত উপ-প্রধানমন্ত্রী (মাঝে) এবং জিএএসি সলিউশনস-এর প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তা রাজাক আসলাম মোহাম্মদ আবদুর রাজাক কাবুলে চুক্তিতে স্বাক্ষর করার পর করমর্দন করছেন। ২৪ মে, ২০২২।

আফগানিস্তানে তালিবানের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ভারপ্রাপ্ত উপ-প্রধানমন্ত্রী (মাঝে) এবং জিএএসি সলিউশনস-এর প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তা রাজাক আসলাম মোহাম্মদ আবদুর রাজাক আফগানিস্তানের কাবুলে চুক্তিতে স্বাক্ষর করার পর করমর্দন করছেন। ২৪ মে, ২০২২।

কাবুলসহ আফগানিস্তানের ৩টি বিমানবন্দরে “গ্রাউন্ড হ্যান্ডলিং” অপারেশন চালানোর অনুমতি দিয়ে তালিবান সরকার মঙ্গলবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রচালিত বিমান সংস্থার সাথে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

আফগানিস্তানের রাজধানীতে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে তালিবানের উপ-প্রধানমন্ত্রী মোল্লা আব্দুল গণি বারাদার এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত ভিত্তিক জিএএসি সলিউশনস-এর কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে দেয়া ভাষণে বারাদার বলেছেন যে, তিনি আশা করেন যে চুক্তিটি সমস্ত আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থাকে আফগানিস্তানে ফিরে যেতে এবং অন্যান্য দেশের সাথে বাণিজ্য বৃদ্ধি করার আস্থা দেবে।

তালিবান এই নেতা বিনিয়োগকারী দেশগুলোকে আশ্বাস দিয়েছেন যে, তার সরকার তাদের সমস্ত সুযোগ-সুবিধা, সহযোগিতা এবং নিরাপত্তা দেবে যাতে তারা খনিসহ সমস্ত আফগান খাতে বিনিয়োগ করতে পারে।

১৮ মাসের এ চুক্তির অধীনে দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর কান্দাহার এবং পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর হেরাতের বিমানবন্দরগুলোর নিয়ন্ত্রণ ও ব্যবস্থাপনাও আরব আমিরাতের কোম্পানিটির কাছে হস্তান্তর করা হবে।

তালিবান সরকার অধুনালুপ্ত পশ্চিমা-সমর্থিত সরকারের কাছ থেকে ক্ষমতা দখলের সময় অর্থাৎ ২০২১ সালের ১৫ আগস্ট পর্যন্ত জিএএসি কাবুলে কাজ করেছে। তালিবানের সাথে প্রায় ২০ বছরের যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও নেটোর সর্বশেষ সৈন্যদের ওই মাসের শেষের দিকে আফগানিস্তান থেকে প্রত্যাহার করা হয়।

মানবাধিকার সংক্রান্ত ও সন্ত্রাসবাদের সাথে সংশ্লিষ্টতা সংক্রান্ত উদ্বেগ এবং অন্তর্ভূক্তিকরণের অভাবে বিশ্ব সম্প্রদায় তালিবান সরকারকে এখনো স্বীকৃতি দেয়নি।

বিশ্বব্যাপী ক্ষোভ এবং সতর্কতা সত্ত্বেও ইসলামপন্থী এ গোষ্ঠটি ক্ষমতায় ফিরে আসার পর থেকে নারীর অধিকার ক্রমাগতভাবে খর্ব করছে। এ ধরনের পদক্ষেপ কাবুলের সাথে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে দাতা দেশগুলোকে নিরুৎসাহিত করবে।

[এ প্রতিবেদনের কিছু তথ্য রয়টার্স থেকে নেয়া হয়েছে।]

XS
SM
MD
LG