অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশের সুন্দরবনে ৩ মাস মাছ ধরা নিষেধ, ৩১ আগস্ট পর্যন্ত পর্যটক নিষিদ্ধ


সুন্দরবন

বাংলাদেশের সুন্দরবনে, ১ জুন থেকে মাছ আহরণ ও দর্শণার্থী প্রবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে বন বিভাগ।

সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মুহাম্মাদ বেলায়েত হোসেন বলেন, “ইন্টিগ্রেটেড রিসোর্সেস ম্যানেজমেন্ট প্লানেলের (আইআরএমপি) সুপারিশ অনুযায়ী, এই তিন মাস, বেশিরভাগ প্রজাতির মাছের প্রজনন সময়। তাই সুন্দরবনে সব ধরনের প্রবেশাধিকার বন্ধ রাখা হয়।”

ডিএফও বলেন, “ইতোমধ্যে প্রবেশের অনুমতি দেয়া বন্ধ করে দিয়েছে বন বিভাগ এবং সুন্দরবনে নজরদারিও বাড়ানো হয়েছে।”

বেলায়েত হোসেন বলেন, “সাধারণ ১ জুলাই থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত সুন্দরবনের সব নদী ও খালে মাছ আহরণ বন্ধ থাকে। এই বছর মৎস্য বিভাগের সঙ্গে সমন্বয় করে, এই নিষেধাজ্ঞা এক মাস বৃদ্ধি করে ১ জুন থেকে বন্ধ রাখা হয়েছে।”

নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হওয়ায়, মাছের প্রজন বৃদ্ধি পাবে বলে জানান ডিএফও বেলায়েত হোসেন।

সুন্দরবনের ছয় হাজার ১৭ বর্গকিলোমিটার বাংলাদেশ অংশে, ২১০ প্রজাতির সাদামাছ, ২৪ প্রজাতির চিংড়ি, ১৪ প্রজাতির কাঁকড়া, ৪৩ প্রজাতির মালাস্কা ও এক প্রজাতির লবস্টার রয়েছে।

XS
SM
MD
LG