অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মিয়ানমারের জান্তা সরকার কয়েক দশকের মধ্যে প্রথম বিচারবিভাগীয় মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতে যাচ্ছে   


২০২২ সালের ৩রা জুন এই ছবি বানানো হয় এবং মিয়ানমারের সামরিক তথ্য টিম গণতন্ত্রকামী সক্রিয়কর্মী কিয়াও মিন ইউ (বাঁয়ে) এবং প্রাক্তন আইনপ্রণেতা মং কিয়াও-র ছবিটি ছাপিয়ে প্রকাশ করে

মিয়ানমারের জান্তা সরকার কয়েক দশকের মধ্যে প্রথম বিচারবিভাগীয় মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতে যাচ্ছে

মিয়ানমারের জান্তা সরকার সন্ত্রাসবাদের দায়ে দোষী সাব্যস্ত অং সান সু চির দলের একজন সাবেক সদস্য এবং একজন বিশিষ্ট গণতন্ত্রকামী সক্রিয় কর্মী মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করবেএকজন মুখপাত্র শুক্রবার এএফপি সংবাদ মাধ্যমকে এ কথা জানিয়েছে। ১৯৯০ সালের পর এটাই হবে দেশটিতে প্রথম বিচার বিভাগীয় মৃত্যুদণ্ড

সাবেক এমপি ফিয়ো জেয়া থাও এবং গণতন্ত্রকামী সক্রিয়কর্মী কো জিমিসহ চারজনকে “কারাগারের নিয়ম অনুযায়ী ফাঁসি দেওয়া হবে” জাও মিন তুন এএফপিকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

গত বছর ক্ষমতা দখলের পর ভিন্নমতাবলম্বীদের বিরুদ্ধে দমন-পীড়নের অংশ হিসেবে জান্তা সরকার অভ্যুত্থান বিরোধী কয়েক ডজন কর্মীকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছে কিন্তু মিয়ানমার কয়েক দশক ধরে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেনি।

অং সান সু চির ন্যাশনাল লীফর ডেমোক্রেসির সাবেক সদস্য ফিয়ো জেয়া থাওকে নভেম্বরে গ্রেপ্তার করা হয় এবং সন্ত্রাসবাদ বিরোধী আইনের অধীনে অপরাধের জন্য তাকে জানুয়ারি মাসে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়।

বিশিষ্ট গণতন্ত্রকামী সক্রিয়কর্মী কিয়াও মিন ইউ যিনি "জিমি" নামে বেশি পরিচিত - সামরিক ট্রাইবুনালতাকেও একই শাস্তি দিয়েছে

মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের জন্য কোনো তারিখ নির্ধারণ করা হয়নি বলেও জানান তিনি।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের উপ-পরিচালক ফিল রবার্টসন বলেন, "দুজন বিশিষ্ট রাজনৈতিক নেতাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার জন্য জান্তা সরকারের এই সিদ্ধান্ত দেশের প্রগতিশীল সামরিক-বিরোধী প্রতিরোধের আগুনে গ্যাস ঢালার মতো কাজ হবে।

XS
SM
MD
LG