অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

১৯-এ চ্যাম্পিয়ন, ৩৬-এও চ্যাম্পিয়ন: ১৪ বার ফ্রেঞ্চ ওপেন শিরোপা জিতলেন নাদাল


প্যারিসের রোল্যান্ড গ্যারোস স্টেডিয়ামে ফরাসি ওপেন টেনিস টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা চলাকালীন নরওয়ের ক্যাসপার রুডের কাছে একটি বল ভলি করছেন স্পেনের রাফায়েল নাদাল। রবিবার, ৫ জুন, ২০২২।

টেনিস তারকা রাফায়েল নাদাল, ৩৬ বছর বয়সে ১৪ বারের মতো ফ্রেঞ্চ ওপেন শিরোপা জিতলেন। স্পষ্টতই, রাফায়েলের তুলনা কেবল তিনি নিজেই। আজকের নাদাল আর ২০০৫ সালে মাত্র ১৯ বছর বয়সে প্রথমবারের মতো ফ্রেঞ্চ ওপেন জয়ী নাদালের মধ্যে তফাৎ আছে।

নাদালকে অপ্রতিরোধ্য ছাড়া আর কিই বা বলা যেতে পারে। তার ৩৬ তম জন্মদিনের ঠিক দু’দিন পরই এই জয় পেলেন নাদাল, এবং এই জয়ের ফলে ক্লে-কোর্ট টুর্নামেন্টের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বয়সী শিরোপাধারী হিসেবে ইতিহাসে জায়গা করে নিলেন তিনি।

ট্রফি প্রদান অনুষ্ঠানের সময়, নাদাল তার পরিবার এবং সহায়তাকারী দলকে ধন্যবাদ জানান, যার মধ্যে একজন ডাক্তারও ছিলেন, যিনি প্যারিসে তার সাথে ছিলেন, তাকে সাহায্য করার জন্য, কারণ অন্যথায় তাকে "হয়তো অনেক আগেই অবসর নিতে হত"।

নাদাল এসময় উপস্থিত দর্শকদের উদ্দেশ্যে বলেন, "আমি জানি না ভবিষ্যতে কী ঘটতে পারে, তবে খেলতে থাকার জন্য আমি আমার লড়াই চালিয়ে যাব।"

প্যারিসে কোনও বড় ইভেন্টে পুরুষ কিংবা নারীদের মধ্যে কেউই কখনও ১৪-টির বেশি একক ট্রফি জিতেনি। এছাড়া নাদালের চেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপাও জিততে পারেননি অন্য কোনো খেলোয়াড়।

তিনি তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী, হাঁটুর অপারেশনের পর প্রায় এক বছর মাঠের বাইরে থাকা রজার ফেদেরার থেকে দুই ধাপ এগিয়ে। এছাড়া কোভিড-১৯ এর টিকা না নেওয়ায়, গত জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন মিস করা নোভাক জোকোভিচ-এর চাইতেও এগিয়ে আছেন নাদাল।

নাদাল ইউএস ওপেন চারবার এবং অস্ট্রেলিয়ান ওপেন ও উইম্বলডন দুইবার করে জিতেছেন।

নাদাল বলেন, "আমার জন্য, ব্যক্তিগতভাবে, আমার এই অনুভূতি বর্ণনা করা খুব কঠিন। এটি এমন একটি বিষয় যা আমি নিশ্চিতভাবে, কখনও বিশ্বাস করিনি - এখানে ৩৬ বছর বয়সে এসে আবার প্রতিযোগিতায় নামা, সবচেয়ে প্রিয় কোর্টে খেলা। আমার ক্যারিয়ার, ফাইনালে আরও একবার। এটা আমার জন্য অনেক অর্থবহ। মানে সবকিছু।"

XS
SM
MD
LG