অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে গতবারের চেয়ে ভালো নির্বাচন প্রত্যাশা করে জাপান: রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি


বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি
বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি

গত জাতীয় নির্বাচনের তুলনায়, এবার বাংলাদেশে একটি ভালো নির্বাচন হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি। রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি বলেন, “আমি বাংলাদেশ সরকারের কিছু ইতিবাচক পদক্ষেপ লক্ষ করেছি…। তাই ৫০ বছর পর প্রথমবারের মতো একটি নতুন আইন প্রণয়ন হলো। আমি মনে করি এটি একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ।”

জাপানের রাষ্ট্রদূত বলেন, “আগামী বছরের শেষের দিকে নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও, গণমাধ্যম প্রায় প্রতিদিনই নির্বাচনী বিষয় নিয়ে কথা বলছে এবং সংবাদ প্রচার করছে।”

মঙ্গলবার (৭ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাবে ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ (ডিক্যাব) আয়োজিত ‘ডিক্যাব টক’ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন রাষ্ট্রদূত।

ডিক্যাব সভাপতি রেজাউল করিম লোটাসের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক একেএম মঈনুদ্দিন।

রাষ্ট্রদূত নাওকি বলেন, “ আমার প্রত্যাশা গত জাতীয় নির্বাচনের তুলনায় একটি ভালো, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য এখন থেকে আগামী বছরের শেষ পর্যন্ত আরও কিছু ব্যবস্থা নেয়া হবে।”

জাপানের রাষ্ট্রদূত বলেন, “ আমি কয়েকজন সরকারি কর্মকর্তাকে বলেছি, বাংলাদেশে এবার তুলনামূলক ভালো, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে-এমনটা প্রত্যাশা করে জাপান। আমি সরকারের কাছে এ দাবি উত্থাপন অব্যাহত রাখব।”

তিনি বলেন, “আপনারা শুনে অবাক হবেন, ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের নির্বাচনের পরপররই জাপান দূতাবাস কিছু উদ্বেগ জানিয়ে একটি বিবৃতি দেয়। এর মূল বিষয় ছিল- নির্বাচনকে ঘিরে যে সহিংসতা হয়েছিল।”

রাষ্ট্রদূত নাওকি বলেন, “আমি মনে করি তুলনামূলক ভালো নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য, গণমাধ্যমের জন্য জায়গা থাকা গুরুত্বপূর্ণ। গণমাধ্যমের ভূমিকা ছোট করে দেখা উচিত নয়।”

জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি বলেন, “আগামী বছর নির্বাচনের সময় গণমাধ্যমের জন্য জায়গা থাকবে বলে আমি আশাবাদী।”

XS
SM
MD
LG