অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউক্রেনীয় এবং রুশ বাহিনী সিভিরোডনেটস্ক নিয়ন্ত্রণের জন্য লড়াই করছে


কিয়েভের মেইডেন স্কয়ারে এক ব্যক্তি বালির ব্যাগ দিয়ে তৈরি ‘হেল্প’ শব্দটির পাশ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন। ৬ জুন, ২০২২।

ইউক্রেনীয় ও রুশ বাহিনী সোমবার পূর্বাঞ্চলীয় শহর সিভিরোডনেটস্কের রাস্তায় রাস্তায় তীব্র সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছে। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, রুশ সৈন্যরা দক্ষিণ-পূর্বের প্রধান শহর জাপোরিঝিয়াও দখল করতে চাইছিল।

সিভিরোডনেটস্ক শহর প্রশাসনের প্রধান ওলেকসান্ডার স্ট্রিউক টিভিতে তার এক বক্তৃতায় বলেছিলেন, শহরের পরিস্থিতি “ঘণ্টায় ঘণ্টায় পরিবর্তিত হচ্ছিল।“

প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি বলেছেন, ইউক্রেনীয় বাহিনীর কাছে শহরটির নিয়ন্ত্রণ নেয়ার “সব ধরনের সম্ভাবনা” রয়েছে।

ইউক্রেন যুদ্ধে হারতে পারে- লুহানস্কের আঞ্চলিক গভর্নর সের্হি হাইদাই এমন ইঙ্গিত দেয়ার পরে জেলেন্সকির এমন মন্তব্য এসেছে।

রাশিয়া এবং ইউক্রেন উভয়েই একে অপরের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করেছে বলে দাবি করেছে।

সোমবার ব্রিটেন ঘোষণা করেছে, তারা ইউক্রেনে এম২৭০ মডেলের মাল্টিপল-লঞ্চ রকেট সিস্টেম পাঠাচ্ছে যা ৮০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত করতে সক্ষম।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গত সপ্তাহে বলেছিলেন, যুক্তরাষ্ট্র কিয়েভ সরকারকে ৭০ কোটি ডলার মূল্যের নতুন অস্ত্র পাঠানোর পরিকল্পনা করছে যার মধ্যে ৪টি প্রিসিশন-গাইডেড মাঝারি পাল্লার রকেট সিস্টেম, হেলিকপ্টার, জ্যাভলিন এন্টি ট্যাঙ্ক উইপন সিস্টেম,রাডার, কৌশলগত যানবাহন, অতিরিক্ত যন্ত্রাংশসহ আরও অনেক সরঞ্জাম রয়েছে।

রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রক সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের ৬১ জন নাগরিকের বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। রাশিয়া জানায়, “যুক্তরাষ্ট্রের ক্রমবর্ধমান নিষেধাজ্ঞার” প্রতিক্রিয়ায় তারা এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

নিষেধাজ্ঞার তালিকায় রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি সেক্রেটারি জ্যানেট ইয়েলেন এবং নেটফ্লিক্সের সিইও রিড হেস্টিংস।

এ প্রতিবেদনের কিছু তথ্য রয়টার্স এবং এপি থেকে নেয়া হয়েছে।

XS
SM
MD
LG