অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পোল্যান্ডে বিচার বিভাগের সংস্কার নেই, তো অর্থও নেই: ইইউ প্রধান


পোল্যান্ডের পাওয়ার গ্রিডের সদর দফতরে পোল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মাতেউস মোরাউইকির সাথে একটি যৌথ সংবাদ সম্মেলনের পর কথা বলছেন, পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেজ ডুদা (ডানদিকে) এবং ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ফন ডার লেয়েন।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রধান নির্বাহী মঙ্গলবার সংকল্প ব্যক্ত করেন, পোল্যান্ড ইউরোপীয় ইউনিয়নের বিশাল মহামারী ত্রাণ তহবিল থেকে কোনও অর্থ পাবে না, যতক্ষণ পর্যন্ত ডানপন্থী সরকার দেশটির বিচার বিভাগের স্বাধীনতা সীমিত করার জন্য নেয়া গৃহীত পদক্ষেপগুলি থেকে ফিরে না আসে।

পোল্যান্ড করোনভাইরাস ছড়িয়ে পড়া সীমিত করার জন্য প্রবর্তিত পদক্ষেপের প্রভাব থেকে তার অর্থনীতিকে পুনরুদ্ধার করতে সহায়তা করার জন্য প্রায় ৩,৬০০ কোটি ইউরো (৩,৮৫০ কোটি ডলার) পাওয়ার জন্য লাইনে রয়েছে। কিন্তু বিচার বিভাগের উপর রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের বিষয়ে উদ্বেগের কারণে ইউরোপীয় ইউনিয়নের তহবিলে পোল্যান্ডের প্রবেশাধিকার রুদ্ধ করে দিয়েছে।

ইউরোপীয় কমিশন, যারা ইউরোপীয় ইউনিয়নের আইনের প্রস্তাব করে এবং সেগুলি কীভাবে প্রণীত হয় তা তত্ত্বাবধান করে, তারাও জোর দিয়ে বলেছে যে, পোলিশ বিচারকদের জন্য শৃঙ্খলা বিষয়ক চেম্বার বিলুপ্ত করা হোক , এর নিয়মাবলী পুনরায় লেখা হোক । এছাড়া চেম্বার দ্বারা নিষেধাজ্ঞা প্রাপ্ত বিচারকদের বিষয়টিও পর্যালোচনা করা হোক।

ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডার লেয়েন ফ্রান্সের স্ট্রাসবার্গে ইইউ আইনপ্রণেতাদের বলেন, "আমি একদম স্পষ্ট করে বলতে চাই, এই তিনটি প্রতিশ্রুতি, মাইলফলক হিসাবে গণ্য করা হচ্ছে , কোন অর্থ প্রদানের আগে অবশ্যই তা পূরণ করতে হবে।"

ইউরোপীয় পার্লামেন্টও গণতান্ত্রিক বিষয়ে পশ্চাদপসরণ নিয়ে পোল্যান্ডের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। আইন প্রণেতারা ভন ডের লেইন এবং তার কমিশনকে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে খুব ধীর হওয়ার জন্য সমালোচনা করেছেন। কেউ কেউ তার বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোটের আহ্বান জানাচ্ছেন যদি কমিশন খুব তাড়াতাড়ি কোনো তহবিল বিমুক্ত করে।

ভন ডের লেয়েন বলেছেন, "আমি জানি যে আপনাদের মধ্যে কেউ কেউ সংশয় পোষন করেন, কিন্তু আমাকে আশ্বস্ত করতে দিন যে এই সংস্কারগুলি না করা পর্যন্ত কোনও অর্থ বিতরণ করা হবে না।" তিনি তহবিল গ্রহণের জন্য পোল্যান্ডের একটি পরিকল্পনা সম্পর্কে বলেন, "প্রথম অর্থ প্রদান তখনই সম্ভব হবে, যখন একটি নতুন আইন কার্যকর হবে, যা এই চুক্তির অধীনে সমস্ত বাক্সে টিক চিহ্ন পড়বে।"

ভন ডের লেয়েন আরও বলেছেন, " ২০২৩ সাল শেষ হবার আগেই পোল্যান্ডকে দেখাতে হবে যে, বেআইনিভাবে বরখাস্ত করা সকল বিচারককে পুনর্বহাল করা হয়েছে। যদি এটি করা না হয়, তবে আর কোনো অর্থ প্রদান করা হবে না।"

পোল্যান্ডের আইন প্রণেতারা এখনও শৃঙ্খলা বিষয়ক চেম্বার বাতিল করার জন্য সুপ্রিম কোর্টের নিয়ম পরিবর্তনের জন্য কাজ করছেন। এ পর্যন্ত বরখাস্ত হওয়া কয়েক ডজন বিচারকের মধ্যে মাত্র একজনকে পুনর্বহাল করা হয়েছে, তাও আবার আদালতের একটি ভিন্ন বিভাগে, এবং পুনর্বহাল করা হলেও তাঁকে ছুটিতে যাওয়ার আদেশ দেওয়া হয়েছে।

XS
SM
MD
LG