অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সামিট অফ দ্য আমেরিকাস-এ অর্থনৈতিক ও স্বাস্থ্যসেবা উদ্যোগ উদ্বোধন করলেন বাইডেন


সামিট অফ দ্য আমেরিকাস-িএর উদ্বেধনী অধিবেশনে ভাষণ দিচ্ছেন প্রেসিডেন্ট জও বাইডেন, জুন ২০২২, লস এঞ্জেলেস।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, বুধবার (৮ জুন) লস অ্যাঞ্জেলসে, নবম সামিট অফ দ্য আমেরিকাস বা আমেরিকা শীর্ষ সম্মেলনের আয়োজন করেন। এই সম্মেলনটি উত্তর, দক্ষিণ ও মধ্য আমেরিকা এবং ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের নেতাদের এক সম্মেলন।

সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাইডেন বলেন, “আমাদের অঞ্চলটি বিশাল এবং বিচিত্র। আমরা সবসময় সবকিছুতে একমত হতে পারিনা। কিন্তু যেহেতু আমরা গণতান্ত্রিক, তাই আমরা পরস্পরের মধ্যে শ্রদ্ধা ও আলোচনার মাধ্যমে আমাদের মতভেদ কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করি।”

তবে, বলিভিয়া, গুয়াতেমালা, হন্ডুরাস এবং মেক্সিকোর নেতাদের যোগ না দেওয়ার সিদ্ধান্তে, সম্মেলনটি কিছুটা ম্লান হয়ে যায়। কিউবা, নিকারাগুয়া এবং ভেনেজুয়েলাকে যুক্তরাষ্ট্র সম্মেলনে অন্তর্ভুক্ত করেনি বলে,ওই দেশগুলোর নেতারা সম্মেলনে যোগ দেননি । যুক্তরাষ্ট্র তাদের অন্তর্ভুক্ত করেনি কারণ, ঐ দেশগুলো ২০০১ সালের আন্তঃআমেরিকান গণতান্ত্রিক সনদের সব শর্ত পূরণ করতে পারেনি। ঐ সনদ গণতন্ত্রকে সম্মেলনের একটি মূল আদর্শ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করে। এছাড়াও, কোভিড-১৯ সংক্রমণ ধরা পড়ায়, উরুগুয়ের প্রেসিডেন্ট সম্মেলনে যোগ দেওয়া থেকে বিরত থেকেছেন।

সম্মেলনে বাইডেন, হোয়াইট হাউজের বিধিমতে, আমেরিকাস পার্টনারশিপ ফর ইকোনমিক প্রসপারিটি নামক একটি উদ্যোগ উদ্বোধন করেছেন। এমন উদ্যোগ, মহামারী থেকে “ন্যায়সঙ্গত পুনরুদ্ধারকে” সমর্থন যোগাবে। এছাড়াও, এর মধ্যে, এই অঞ্চলের খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার জন্য ৩০ কোটি ডলারের সহায়তাও রয়েছে। অঞ্চলটি, কোভিড-১৯ ও ইউক্রেন যুদ্ধের অর্থনৈতিক প্রভাব মোকাবেলা করছে।


প্রশাসনের এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা বুধবার সাংবাদিকদের বলেন যে, “প্রশাসন আশা করছে, পরিকাঠামো উপস্থাপন করার পর, অংশীদারদের সাথে আগামী “দুই থেকে তিন মাস” ধরে এটা নিয়ে আলোচনা করে, একটা আনুষ্ঠানিক সংলাপের শুরু করতে পারবে।”

তবে, এই পরিকল্পনায় কোন নতুন বাণিজ্য চুক্তি থাকবে না এবং যুক্তরাষ্ট্র এই প্রচেষ্টায় কি পরিমাণ অর্থের প্রতিশ্রুতি দিতে পারে সে বিষয়েও কোন অনুমান জানাননি প্রশাসনের ঐ কর্মকর্তা।

XS
SM
MD
LG