অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইইউ নেতারা ক্রমবর্ধমান বিভাজন ও উত্তেজনার মধ্যে কিয়েভ পরিদর্শন করেছেন


ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ,ডানে, রোমানিয়ার প্রেসিডেন্ট ক্লাউস ইওহানিস, বামে, ইতালির প্রধানমন্ত্রী মারিও ড্রাঘি, মাঝে, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি, সামনে, এবং বামে জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ স্কোলজকে কিয়েভে দেখা যাচ্ছে। ১৬ই জুন, ২০২২।

কিইভের ইইউ প্রার্থিতা নিয়ে আগামী সপ্তাহে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের আগে ইউরোপীয় ইউনিয়নের চার নেতা বৃহস্পতিবার ইউক্রেন সফর করছেন এবং একই সাথে যুদ্ধের প্রতি ইউরোপের দীর্ঘমেয়াদী প্রতিশ্রুতি নিয়ে উত্তেজনা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

কিয়েভের যুদ্ধ-বিধ্বস্ত শহরতলী বুচা থেকে সংবাদদাতাদের সাথে কথা বলার সময়, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বলেছেন, জার্মানি, ইতালি এবং রোমানিয়ার নেতাদের সাথে তার সফর ইউক্রেনের প্রতি ইউরোপীয় ইউনিয়নের দৃঢ় রাজনৈতিক সমর্থন এবং এর জনগণের সাহসের জন্য শ্রদ্ধার ওপর জোর দিয়েছে।

ম্যাক্রোঁ তার এমন মন্তব্য নিয়ে ইইউ-এর মধ্যে বিতর্ককে খারিজ করে দিয়েছেন যে ফ্রান্স মনে করে আগ্রাসী রাশিয়াকে সংঘাত থেকে বেরিয়ে আসার জন্য অপমানিত করা উচিত নয়। তিনি বলেন, ফ্রান্স শুরু থেকেই কিয়েভের পাশে ছিল।

তাছাড়াও যে সব দেশ ইইউ সদস্য নয় তাদের জন্য তথাকথিত অন্তর্বর্তী "ইউরোপীয় রাজনৈতিক সম্প্রদায়" গঠনের জন্য ম্যাক্রোঁ যে আহ্বান করেছেন, ইউক্রেন তার সমালোচনা করেছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের চার নেতার ইউক্রেন সফরটি হচ্ছে ব্লকের কার্যনির্বাহী শাখা ইউক্রেনকে ইইউ প্রার্থীতার মর্যাদা দেওয়ার সুপারিশ করার এক দিন আগে । ইইউ এর ২৭ সদস্য আগামী সপ্তাহে একটি শীর্ষ সম্মেলনের সময় সিদ্ধান্ত নেবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এমনকি তার প্রার্থিতা অনুমোদিত হলেও, ইউক্রেন সম্ভবত ইইউ সদস্য হওয়ার জন্য বছরের পর বছর অপেক্ষা করবে - তবে কিইয়েভ বলেছে যে পদক্ষেপটি প্রতীকীভাবে গুরুত্বপূর্ণ।

তবে ফলাফল অনিশ্চিত। পোল্যান্ড এবং বল্টিক দেশের সদস্যরা ইউক্রেনের প্রার্থীতাকে জোরালোভাবে সমর্থন করে; পর্তুগাল এবং ডেনমার্কের মত অন্যরা এ ব্যাপারে তাদের আপত্তির কথা জানিয়েছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের বৃহত্তম দেশগুলি এ ব্যাপারে কিছুটা উষ্ণ মনোভাব পোষণ করে , তবে বুধবার মোল্দোভা সফরের সময়, ম্যাক্রোঁ ইউক্রেনের ইইউ সদস্য প্রার্থীতার মর্যাদাকে সমর্থন করেছেন বলে মনে হয়েছিল।

XS
SM
MD
LG