অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পশ্চিমা দেশগুলোর প্রতি ক্ষুব্ধ পুতিন,ইইউ-তে যোগদানে একধাপ এগিয়ে ইউক্রেন


ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণ চলাকালীন, ১৭ জুন ২০২২ তারিখে লুহানস্ক অঞ্চলের লিসিশ্যান্সক এর নিকটবর্তী বিলোগোরিভকা গ্রামের এক ধ্বংস হয়ে যাওয়া বিদ্যালয়ের পাশে কান্নায় ভেঙে পড়েন ইউক্রেনের বাসিন্দা রাইসা।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সদস্যপদের জন্য ইউক্রেনের প্রার্থীতা অনুমোদন করতে, ইউরোপীয় কমিশনের করা সুপারিশের প্রতি সাধুবাদ জানিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি। অপরদিকে, রাশিয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় পশ্চিমা দেশগুলোর প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তবে, ইইউ এর সিদ্ধান্তকে বেশি গুরুত্ব দেননি পুতিন।

সেইন্ট পিটার্সবার্গ আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক ফোরামে শুক্রবার বক্তব্য রাখেন পুতিন। সেখানে তিনি পশ্চিমা দেশগুলোর বিরুদ্ধে “ঔপনিবেশিক অহংকার” এবং রাশিয়াকে নিষেধাজ্ঞার মাধ্যমে পদদলিত করার প্রচেষ্টার অভিযোগ করেন। এমন প্রচেষ্টাকে “বোকামি” হিসেবে বর্ণনা করেন পুতিন।

তবে, তিনি বলেন যে, ইইউতে যোগ দেওয়ার ইউক্রেনের চেষ্টার “বিরুদ্ধে কোন আপত্তি নেই” তার।

পুতিন বলেন, ইউক্রেনে “বিশেষ সামরিক অভিযান” অব্যাহত থাকবে। তিনি, তার ভাষ্যমতে, “পশ্চিমা শত্রুতার” মুখে রাশিয়ার সার্বভৌমত্ব ও শক্তির বিষয়টি জোরালোভাবে উল্লেখ করেন।

পুতিন বলেন, “বর্তমান পরিস্থিতিতে, আমাদের জন্য ক্রমবর্ধমান ঝুঁকি ও হুমকির প্রেক্ষাপটে, বিশেষ সামরিক অভিযান পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নিতে রাশিয়া বাধ্য হয় যদিও সেটা কঠিন ছিল, কিন্তু তবুও সেটা বাধ্য হয়ে ও প্রয়োজনে নিতে হয়।”

শুক্রবার দিনের শুরুর দিকে, জেলেন্সকি এক টুইট বার্তায় লেখেন যে, ইইউ এর সিদ্ধান্তটির প্রতি তিনি সাধুবাদ জানান। তিনি আরও লেখেন যে, “ইইউ সদস্যপদের পথে এটি প্রথম ধাপ যা কিনা নিশ্চিতভাবেই আমাদের বিজয়কে আরও কাছে নিয়ে আসবে।”

২৭ সদস্যবিশিষ্ট এই জোটের সদস্য হওয়ার দীর্ঘ প্রক্রিয়ায় এই সুপারিশ প্রথম ধাপ মাত্র। কমিশনের করা সুপারিশ বিবেচনা করতে এই মাসের শেষের দিকে ইইউ নেতারা বৈঠক করবেন। একই সাথে কমিশন মলডোভার সদস্যপদের জন্যও সুপারিশ করেছে, তবে জর্জিয়ার জন্য কোন সুপারিশ করা হয়নি।

XS
SM
MD
LG