অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মিয়ানমারে সু চি-র বিচার কারাগারে স্থানান্তরিত করা হয়েছে


এই ছবিটি ২০২১ সালের ২৪ মে তোলা হয়েছে এবং ২৬ মে মিয়ানমারের তথ্য মন্ত্রক প্রকাশ করেছে। আটক বেসামরিক নেতা অং সান সু চি (বাঁয়ে) এবং আটক প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ট-এর নেপিডোর আদালতে প্রথম হাজিরা। ফাইল ছবি।

মিয়ানমারের ক্ষমতাচ্যুত নেত্রী অং সান সু চি-র বিচারের শুনানি সেনানির্মিত রাজধানী নেপিডোর একটি কারাগারে স্থানান্তর করা হবে, মামলার সাথে সম্পর্কিত একটি সূত্র মঙ্গলবার একথা জানায়।

নোবেল বিজয়ী সু চি-কে (৭৭) গত বছর ক্ষমতাচ্যুত করার সময় সেনাবাহিনী আটক করে এবং সু কি-কে ১৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে জেল হতে পারে এমন অভিযোগের মুখোমুখি হতে হয়েছিল।

এরপর থেকে তাকে ২০০৬ সালে সেনাবাহিনীর উদ্বোধন করা রাজধানীর এক অজ্ঞাত স্থানে আটকে রাখা হয়েছে।

মামলাটির সাথে সম্পর্কিত একটি সূত্র জানিয়েছে, কম্পাউন্ডে একটি নতুন আদালত ভবনের নির্মাণের সমাপ্তির পরে ভবিষ্যতের শুনানি “নেপিডোর কারাগারের নতুন বিশেষ আদালতে পরিচালিত হবে।”

সূত্রটি বিস্তারিত আর কিছু জানায়নি।

সু চি-র আইনজীবীদের গণমাধ্যমের সাথে কথা বলতে নিষেধ করা হয়েছে এবং তার বিচার কার্যক্রমের সময় সাংবাদিকদের উপস্থিতির ওপর বাধা সৃষ্টি করা হয়েছে।

তিনি ইতোমধ্যে দুর্নীতি, সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে উসকানি, কোভিড-১৯ এর বিধিনিষেধ লঙ্ঘন এবং একটি টেলিযোগাযোগ আইন ভঙ্গের জন্য দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন, আদালত তাকে এ পর্যন্ত ১১ বছরের সাজা দিয়েছে।

XS
SM
MD
LG