অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

অ্যাসাঞ্জকে ব্রিটেনের কারাগার থেকে মুক্তির দাবি সাংবাদিকদের


সাংবাদিকরা জেনেভায় একটি সংবাদ সম্মেলনে উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে মুক্ত করার আহ্বান জানিয়ে একটি ব্যানারে স্বাক্ষর করেছেন৷ ২২শে জুন, ২০২২।

সাংবাদিক, সম্পাদক এবং প্রকাশকদের একটি আন্তর্জাতিক জোট বুধবার দাবি করেছে যে উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে অবিলম্বে ব্রিটেনের কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়া হোক এবং তার বিরুদ্ধে সমস্ত অভিযোগ প্রত্যাহার করা হোক।

ছয়টি দেশের সাংবাদিক ও প্রকাশক ইউনিয়ন ও সংগঠনের ১৫ জন প্রতিনিধি জেনেভায় জড়ো হয়েছেন ‘সংবাদপত্রের স্বাধীনতার জন্য জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে মুক্ত করার আহ্বানে’।

ব্রিটিশ সরকার গত সপ্তাহে অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রত্যর্পণের অনুমোদন দেওয়ার পরে, তার সমর্থক এবং মুক্ত সংবাদের পক্ষে প্রচারকারীরা হতাশ হন এবং এই আহ্বান করেন।

৫০ বছর বয়সী অ্যাসাঞ্জ বলেছেন যে তিনি এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করবেন।

২০১০ সালে সামরিক ও কূটনৈতিক ফাইল প্রকাশ করে যুক্তরাষ্ট্রের গুপ্তচরবৃত্তি আইন লঙ্ঘনের জন্য তাকে বিচারের মুখোমুখি হতে বলা হচ্ছে এবং তিনি দোষী প্রমাণিত হলে ১৭৫ বছর পর্যন্ত তার জেল হতে পারে।

অ্যাসাঞ্জের মামলাটি গণমাধ্যমের স্বাধীনতার জন্য একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হয়ে উঠেছে এবং তার সমর্থকরা ওয়াশিংটনকে নিরাপত্তা উদ্বেগের বৈধ প্রতিবেদন ধামা চাপা দেওয়ার চেষ্টা করার অভিযোগ করেছে।

বুধবারের অনুষ্ঠানটিতে ব্রিটিশ সিদ্ধান্তকে "মানবাধিকারের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন এবং সংবাদপত্রের স্বাধীনতার জন্য সম্পূর্ণ অবজ্ঞা প্রদর্শন" হিসাবে নিন্দা করা হয়।

অনুষ্ঠানটির আয়োজক সুইস প্রেস ক্লাবের প্রধান পিয়েরে রুয়েতচি সতর্ক করে দিয়েছেন যে "গণতন্ত্রকে জিম্মি করা হচ্ছে"।

"সাংবাদিকতার অপরাধীকরণের এই প্রচেষ্টা একটি গুরুতর হুমকি।"

ব্রিটেন এবং আয়ারল্যান্ডের ন্যাশনাল ইউনিয়ন অফ জার্নালিস্টের টিম ডসন এ বিষয়ে একমত।

তিনি বলেন, "যদি জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে গুপ্তচর হিসেবে বিচারের হুমকি দেওয়া যেতে পারে, তাহলে অন্য সাংবাদিকদের জন্য এর অর্থ কী হতে পারে?"।

XS
SM
MD
LG