অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইরাকে ৭৩ জন বিধায়কের পদত্যাগের পর সংসদে নতুন সদস্যদের শপথগ্রহণ


ইরাকের বাগদাদে বিধায়করা সংসদ অধিবেশনে যোগ দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন, ২৩ জুন ২০২২।

ইরাকের সংসদ বৃহস্পতিবার নতুন বিধায়কদের শপথ বাক্য পাঠ করিয়েছে। তারা ৭৩ জন বিধায়কের স্থলাভিসিক্ত হলেন যারা আগামি সরকার গঠনের ব্যাপারে দীর্ঘ দিন ধরে চলে আসা অচলাবস্থার মধ্যে এ মাসের প্রথম দিকে সম্মিলিত ভাবে পদত্যাগ করেন।

ইরাকের সবচেয়ে বেশি প্রভাবশালী শিয়া রাজনীতিক মুকতাদা আল সদরের অনুগামীদের ওয়াক-আউট ইরাককে আরও অনিশ্চয়তার পথে ঠেলে দেয়। ১০ অক্টোবরের নির্বাচনের পরে সংসদে পরিবর্তন আসে এবং মুকতাদা আল সদরকে সংসদে সর্বাধিক আসন দেয়।

আল সদর বিজয়ী হলেও তিনি এমন একটি জোট গঠন করতে পারেননি যাতে সংখ্যাগরিষ্ঠ সরকার গঠন করা যায়। তিনি দেশের ভেতরেই ইরান সমর্থিত শিয়া প্রতিপক্ষের সঙ্গে ক্ষমতার লড়াইয়ে লিপ্ত হয়ে পড়েছেন আর তাই নতুন সরকার গঠন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

আট মাস ধরে চলে আসা এই অচলাবস্থার অবসান ঘটাতে দু’ সপ্তাহ আগে তিনি তাঁর সংসদীয় দলের বিধায়কদের পদত্যাগ করার নির্দেশ দেন। এই নজিরবিহীন পদক্ষেপের কারণে ইরাকের রাজনৈতিক চালচিত্রে বিশৃঙ্খলা দেখা দিয়েছে।

ইরাকের আইন অনুযায়ী সংসদের কোন আসন যদি ‍শূণ্য হয়, তা হলে ঐ নির্বাচনী এলাকায় যে প্রার্থী দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন তিনি তাঁর স্থলিাভিষিক্ত হবেন। এ ক্ষেত্রে তাই সদরের বিরোধী পক্ষ, ইরান সমর্থিত শিয়া দলগুলোর জোট তথাকথিত কো-অর্ডিনেশন ফ্রেমওয়ার্ক প্রায় ১২২টি আসন পেয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করেছে।

আর এর ফলে ২০০৫ সালের পর এই প্রথম আল সদর সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারালেন এবং ইরান সমর্থিত গোষ্ঠটি আগামি দিনের সরকারের রূপরেখা ঠিক করবে।

কো-অর্ডিনেশন ফ্রেমওয়ার্ক-এ প্রতিনিধিত্বকারী জোট রুল অফ ল’ এর বিধায়ক মোহাম্মদ সাদুন সেহুদ বলেন, “ আজ প্রথম পদক্ষেপটি সম্পন্ন হলো, স্থলাভিষিক্ত সদস্যরা শপথ নিচ্ছেন”।

তিনি নতুন সরকার গঠনের প্রক্রিয়া শিগগিরই শুরু হবে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, “আমরা এখন কো-অর্ডিনেশন ফ্রেমওয়ার্ক থেকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন এবং প্রধানমন্ত্রীর নাম জানানোর প্রক্রিয়া শুরু করবো।”

নতুন বিধায়কদরে শপথ গ্রহণ সম্পর্কে আল সাদর’এর কাছ থেকে তাত্ক্ষণিক কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। রাজনৈতিক অচলাবস্থার কারণে আল সদরের সমর্থক এবং তাদের শিয়া প্রতিপক্ষের মধ্যে নতুন করে প্রতিবাদ এবং পথে সংঘর্ষ হতে পারে এমন উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার ৬৪ জন বিধায়ক শপথ নিয়েছেন তবে স্থলাভিষিক্ত আরও নয় জন এতে যোগ দেননি।

বুধবার আল সদর রাজনৈতিক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্য ইরানের পক্ষে যারা কাজ করছেন তদের অভিযুক্ত করেন। তিনি আরও বলেন যে নতুন নির্বাচিত নির্দলীয় সদস্যদের এবং তাঁর সদর পন্থি ব্লকের মিত্রদের উপর তারা চাপ প্রয়োগ করছে।

তিনি কোন রকম চাপের কাছে সাংসদদের নতি স্বীকার না করার আহ্বান জানিয়েছেন।










XS
SM
MD
LG