অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নতুন প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন দিয়েছে সোমালিয়ার সংসদ


সোমালিয়ার রাজধানী মোগাদিশুতে রাষ্ট্রপতি প্রাসাদে নবনিযুক্ত প্রধানমন্ত্রী হামজা আবদি বারের সাথে একটি ছবির জন্য পোজ দিচ্ছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান শেখ মোহামুদ। ১৫ জুন, ২০২২।

সোমালিয়ার সংসদ সদস্যরা হামজা আবদি বারেকে দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগের অনুমোদন দিয়েছেন।

শনিবার মোগাদিশুতে অনুষ্ঠিত সংসদ অধিবেশনে উপস্থিত ২০০ জনেরও বেশি সদস্য, সর্বসম্মতিক্রমে বারেকে সমর্থন করেন। বারে সংসদের নিম্নকক্ষেরও সদস্য।

ভোটের পর, বারে ভিওএ-কে এক একান্ত সাক্ষাৎকারে বলেন, তিনি "বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবেলায় একটি কার্যকর সরকার" গঠন করবেন।

তিনি বলেন, "আমি এমন একটি সরকার গঠন করব, যারা নিরাপত্তা, খরা মোকাবেলা, পুনর্মিলন এবং উন্নয়নসহ আমার নতুন সরকারের মূল অগ্রাধিকারগুলিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।"

আন্তর্জাতিক মানবিক সংস্থা এবং সোমালিয়ার খরা ও জলবায়ু সংক্রান্ত রাষ্ট্রপতির বিশেষ দূত আবদিরহমান আবদিশাকুর ওয়ারসামে সতর্ক করে চলেছেন যে, সোমালিয়া বর্তমানে জলবায়ু সম্পর্কিত জরুরি অবস্থা এবং দুর্ভিক্ষের মুখোমুখি।

সোমালিয়ার রাজনীতিতে প্রায়ই প্রেসিডেন্ট এবং প্রধানমন্ত্রীদের মধ্যে বিরোধ লেগেই থাকে। অতীতে, এই ধরনের মতপার্থক্য প্রায়শই সরকারগুলিকে পঙ্গু করে দিয়েছে, যার ফলে আইন প্রণেতারা প্রধানমন্ত্রীদের পদচ্যুত করেন।

পূর্ববর্তী প্রধানমন্ত্রীদের থেকে বারে যদিও ভিন্ন। তিনি বর্তমান প্রেসিডেন্টের ঘনিষ্ঠ বন্ধু এবং ২০১১ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্টের পীস এন্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টির মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

বারে এইবার বলেছেন, যদি তার এবং প্রেসিডেন্টের মধ্যে কোনও রাজনৈতিক মতপার্থক্য দেখাও দেয়, তবে তা উত্তেজনায় পরিণত হবে না।

৪৮ বছর বয়সী বারে, গত ডিসেম্বরে প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এর আগে, তিনি জুবাল্যান্ড আঞ্চলিক নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান ছিলেন।

নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট হাসান শেখ মোহাম্মদ গত ১৫ জুন তাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনীত করেন।

তার সরকারের সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হল আল-কায়েদা-সমর্থিত ইসলামপন্থী গোষ্ঠী আল-শাবাব, যারা এখনও গ্রামীণ দক্ষিণ ও মধ্য সোমালিয়ার বিশাল এলাকা নিয়ন্ত্রণ করে। গোষ্ঠীটি, প্রতিনিয়ত রাজধানী মোগাদিশুসহ প্রধান শহরগুলিতে আত্মঘাতী হামলা ও হত্যাকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে।

XS
SM
MD
LG