অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতে মোদি-বিরোধী সক্রিয়বাদীকে মুক্তি দেওয়ার আহ্বান বিক্ষোভকারীদের


মুম্বাইতে ভারতীয় কর্মী তিস্তা সেটালভাদের গ্রেপ্তারের বিরুদ্ধে সমর্থকরা প্রতিবাদের মিছিলে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে স্লোগান দিচ্ছে। ২৭ জুন, ২০২২।

সোমবার ভারতের বাণিজ্যিক রাজধানী মুম্বাইতে বিক্ষোভকারীরা তিস্তা সেটালভাদ নামে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির একজন সমালোচকের মুক্তি দাবি করেছে। ২০০২ সালে মুসলিম বিরোধী দাঙ্গার বিষয়ে নথি জাল করার সন্দেহে, গত সপ্তাহান্তে ওই সমালোচককে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

রয়টার্সের দেখা পুলিশের নথি অনুসারে, মোদি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন গুজরাটের দাঙ্গা সংক্রান্ত মামলায় সাক্ষীদের বুঝিয়ে-শুনিয়ে , নথি জাল এবং প্রমাণ জাল করার অভিযোগ রয়েছে তিস্তা সেটালভাদের বিরুদ্ধে।

সেটালভাদের একজন আইনজীবীর সঙ্গে মন্তব্যের জন্য যোগাযোগ করা হলেও তাকে তাত্ক্ষণিক ভাবে পাওয়া যায়নি।

মোদির বিরুদ্ধে দাঙ্গা থামাতে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছিল। ওইসময় তার নজরদারিতে কমপক্ষে ১,০০০ লোক মারা গিয়েছিল। তবে মোদি অভিযোগ অস্বীকার করেন এবং ২০১২ সালে ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের তদন্তে খালাস পান। গত সপ্তাহে, সুপ্রিম কোর্ট তার অব্যাহতি নিয়ে প্রশ্ন তুলে আরেকটি আবেদন খারিজ করে দেয়।

সেটালভাদ, একজন নেতৃস্থানীয় অধিকার কর্মী। শনিবার গুজরাটের পুলিশ মুম্বাইতে তার বাসভবন থেকে তাকে আটক করে প্রতিবেশী রাজ্যে নিয়ে যায়। পরে, আনুষ্ঠানিকভাবে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয় এবং ২ জুলাই পর্যন্ত পুলিশী হেফাজতে পাঠানো হয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে প্রতিবাদকারী নুরউদ্দিন নায়েক বলেন, "যেহেতু তার মতো কর্মীরা আইনী লড়াই করছেন, তার মানে এই নয় যে তাদের কারাগারে আটকে রাখা উচিত।"

সেটালভাদের প্ল্যাকার্ড এবং পোস্টার বহনকারী বিক্ষোভকারীরা মোদী এবং তার দল বিজেপির বিরুদ্ধে স্লোগান দেয়।

এদিকে সোমবার টুইটারে শীর্ষ চলমান বিষয় ছিল ‘তিস্তা’।

আন্তর্জাতিকভাবেও তার গ্রেপ্তারের নিন্দা করা হয় এবং মানবাধিকার রক্ষাকারীদের বিষয়ে জাতিসংঘের বিশেষ র‌্যাপোর্টার মেরি ললর বলেছেন, তিনি সেটালভাদের আটকের বিষয়ে "গভীরভাবে উদ্বিগ্ন"।

তিনি এক টুইট বার্তায় বলেছেন, "তিস্তা ঘৃণা ও বৈষম্যের বিরুদ্ধে একটি শক্তিশালী কণ্ঠস্বর। মানবাধিকার রক্ষা করা কোনো অপরাধ নয়। আমি তার মুক্তি এবং ভারতীয় রাষ্ট্র কর্তৃক নিপীড়নের অবসানের আহ্বান জানাই।"

XS
SM
MD
LG