অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

দুই গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীর পদত্যাগে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী আবারও বিপাকে


ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন তার ১০ নং ডাউনিং স্ট্রিটের বাসভবন ত্যাগ করছেন (লন্ডন, ৬ জুলাই, ২০২২)

মন্ত্রীসভার দুইজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্যের পদত্যাগে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের পূর্ণ মেয়াদে টিকে থাকার বিষয়টি আবারও হুমকির মুখে পড়েছে।

কয়েক মিনিটের ব্যবধানে অর্থমন্ত্রী রিশি সুনাক ও স্বাস্থ্য মন্ত্রী সাজিদ জাভিদ অপ্রত্যাশিতভাবে পদত্যাগ করেন। ফলে আজ বুধবার পার্লামেন্টের প্রথাগত প্রশ্নোত্তর পর্বে বরিস জনসন ক্ষুদ্ধ আইনপ্রণেতাদের কাছে দফায় দফায় প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছেন।

বরিস জনসন একটি গুরুত্বপূর্ণ পদে রক্ষণশীল দলের আইনপ্রণেতা ক্রিস পিঞ্চারকে নিয়োগ দেওয়ার জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করার পর এই দুই মন্ত্রী পদত্যাগ করেন। পিঞ্চারের বিরুদ্ধে অভিযোগ হচ্ছে তিনি একটি ক্লাবে মাতাল অবস্থায় দুই ব্যক্তির দেহ হাতড়াচ্ছিলেন যেটা অনৈতিক আচরণ। এ বিষয়ে অভিযোগ থাকা সত্ত্বেও তাকে নিয়োগ দেন বরিস। ডাউনিং স্ট্রিটের কর্মকর্তারা যদিও শুরুতে দাবি করেন, এই অভিযোগ সম্পর্কে বরিস কিছুই জানতেন না। তবে পরবর্তীতে তারা স্বীকার করেন, বিষয়টি সম্পর্কে বরিসকে ২০১৯ সালেই জানানো হয়েছে।

পদত্যাগপত্রে সুনাক লেখেন, ব্রিটিশ জনগণ যথার্থই প্রত্যাশা করে সরকারি কাজ সুষ্ঠুভাবে, উপযোগিতার সঙ্গে এবং গুরুত্ব সহকারে সম্পাদিত হবে, এবং এমনটা ভাবার অধিকারও তাদের আছে। আমি বিশ্বাস করি, এসব মানদণ্ড রক্ষার জন্য লড়াই করা যায় এবং এজন্যই আমি পদত্যাগ করছি।’

সর্বসাম্প্রতিক কেলেঙ্কারির ঘটনাটি ঘটলো রক্ষণশীল দলের ডাকা অনাস্থা ভোট উৎরে যাবার কয়েক সপ্তাহের মধ্যে। করোনাকালে ডাউনিং স্ট্রিটে পার্টি আয়োজন করে লকডাউন আইন ভঙ্গ করায় পুলিশ বরিসকে জরিমানা করেছিল।

পদত্যাগপত্রে জাভিদ জানান, অনাস্থা ভোটে জেতার পর প্রধানমন্ত্রীর সামনে সুযোগ ছিল ‘বিনয়, নিয়ন্ত্রণ ও নতুন দিকনির্দেশনা’ অবলম্বন করার।

“তবে আমার কাছে বিষয়টা পরিষ্কার হয়ে গেছে। আপনার নেতৃত্বে চলমান পরিস্থিতির কোনো পরিবর্তন হবে না।“

বরিস জনসন তাৎক্ষণিকভাবে তার মন্ত্রীসভার অন্য সদস্যদের মাঝে থেকে সুনাক ও জাভিদের শূন্যস্থান পূরণ করে নেন। তবে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন কনিষ্ঠ মন্ত্রীও পদত্যাগ করেন।

লেবার পার্টির নেতা কের স্টার্মার প্রশ্নোত্তর পর্বের শুরুতে পদত্যাগের বিষয়টি নাকচ করে দেন এবং ঐ মন্ত্রীদের সততা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

. এ প্রতিবেদনের কিছু তথ্য এপি ও এএফপি থেকে নেওয়া হয়েছে।

XS
SM
MD
LG