অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

কুষ্টিয়ায় ৫ দিন পর নিখোঁজ সাংবাদিকের মরদেহ উদ্ধার


সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রুবেল

বাংলাদেশের কুষ্টিয়ায়, নিখোঁজ হওয়ার পাঁচ দিন পর সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রুবেলের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৭ জুলাই) দুপুর দেড়টার দিকে জেলার কুমারখালী পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের তেবাড়িয়া এলাকায়, গোলাম কিবরিয়া ব্রিজের (নির্মাণাধীন) নিচে, গড়াই নদী থেকে পুলিশ তার অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করে।

ছোট ভাই মাহবুব রহমান ও কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার, সাংবাদিক রুবেলের মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহত রুবেল (৩১) কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এ ছাড়া, তিনি স্থানীয় দৈনিক কুষ্টিয়ার খবর-এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও দৈনিক আমাদের নতুন সময় পত্রিকার কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি ছিলেন। সাংবাদিকতার পাশাপাশি রুবেল ঠিকাদারি এবং কুষ্টিয়া শহরের পৌর বাজারে পৈত্রিক কাঁচামালের আড়ত দেখাশোনা করতেন। তিনি কুষ্টিয়া শহরের হাউজিং এলাকার এ-ব্লকের মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে।

পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, পাঁচ দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন রুবেল। গত ৩ জুলাই রাত ৯ টার দিকে কুষ্টিয়া শহরের সিঙ্গার মোড়ে, তার পত্রিকা অফিসে থাকা অবস্থায় মোবাইলে একটি কল আসে। তখন তিনি অফিস পিয়নকে, বাইরে থেকে আসছি বলে বের হন। এরপর থেকে তার সবগুলো মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। ঐ দিন রাতেই কুষ্টিয়া মডেল থানায় জিডি করেন তার ছোট ভাই মাহবুব।

বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে ব্রিজের নিচে নদীতে মরদেহ ভেসে ওঠে। পরনের জামা-কাপড়, মানিব্যাগে থাকা পরিচয়পত্র দেখে তার পরিবারের সদস্যরা সাংবাদিক রুবেলের মরদেহ বলে শনাক্ত করেন।

এ বিষয়ে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, “খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে, কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। অপরাধীদের আইনের আওতায় আনতে পুলিশ কাজ করছে।”

কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আল মামুন সাগর ও সাধারণ সম্পাদক আনিসুজ্জামান ডাবলু এ ঘটনার প্রতিবাদ করেছেন এবং নিন্দা জানিয়েছেন। তারা অবিলম্বে হত্যাকারীদের খুঁজে বের করে দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন।

XS
SM
MD
LG