অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

স্নেক আইল্যান্ডে পতাকা তুলেছে ইউক্রেন, তৎক্ষণাৎ কৃষ্ণ সাগর ফাঁড়িতে রুশ আক্রমণ


ইউক্রেনীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের প্রেস অফিসের দেওয়া এই ছবিতে, ইউক্রেনীয় সৈন্যরা কৃষ্ণ সাগরের স্নেক আইল্যান্ডে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করছে। ফাঁড়িটি যুদ্ধের বেশিরভাগ সময় রাশিয়ান সৈন্যদের নিয়ন্ত্রণে ছিল। ৭ জুলাই, ২০২২।

রাশিয়ার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ প্রদর্শনে ইউক্রেন বৃহস্পতিবার কৃষ্ণ সাগরের স্নেক দ্বীপে তার নীল-হলুদ পতাকা উত্তোলন করেছিল, কিন্তু মস্কো অনতিবলিম্বে পাল্টা আক্রমণের করে প্রতিক্রিয়া জানায় এবং সেখানে ইউক্রেনীয় ফাঁড়ির কিছু অংশ ধ্বংস করে দেয়।

চার মাসেরও বেশি আগে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেন আক্রমণ করার পর থেকে ইউক্রেনের বন্দর নগরী ওডেসা থেকে প্রায় ১৪০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত দ্বীপটির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে বিতর্ক চলে আসছিল।

গত সপ্তাহে ইউক্রেন এটি পুনর্দখল করার আগ পর্যন্ত রাশিয়া যুদ্ধের বেশিরভাগ সময়ের জন্য দ্বীপটি নিয়ন্ত্রণ করেছিল, যদিও রাশিয়া দাবি করে যে তারা সদিচ্ছায় নিজেদের প্রত্যাহার করে নিয়েছিল।

ইউক্রেনের সৈন্যরা বৃহস্পতিবার মাটিতে মিশে যাওয়া একটি ভবনের অবশিষ্টাংশের পাশের মাটিতে তাদের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের চিফ অফ স্টাফ অ্যান্ড্রি ইয়ারমাক পরামর্শ দিয়েছিলেন যে, এটি এমন একটি মুহূর্ত, আগামী মাসগুলিতে পুরো ইউক্রেন জুড়ে যেন এর পুনরাবৃত্তি ঘটে।

তিনি টেলিগ্রামে লিখেছেন, "স্নেক আইল্যান্ডে ইউক্রেনের পতাকা উড়ছে। আমাদের সামনে ইউক্রেনের শহরগুলির এমন আরও অনেক ভিডিও রয়েছে যা বর্তমানে আমাদের অস্থায়ী দখলে রয়েছে।"

তবে ওডেসার আঞ্চলিক প্রশাসনের মুখপাত্র সের্হি ব্রাচুক বলেছেন, দ্বীপটির নতুন বাসিন্দাদের উপর রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলার কারণে এর ঘাটের প্রচুর ক্ষতি হয়েছে।

এদিকে, পূর্ব ইউক্রেনে যুদ্ধ চলতে থাকায়, পুতিন পশ্চিমা দেশগুলোকে অভিযুক্ত করেছেন যে, তাঁরা ইউক্রেনকে অস্ত্র পাঠানো অব্যাহত রাখার মাধ্যমে কিয়েভকে এখনো সমর্থন করে যাচ্ছে।

রুশ সংসদের নেতাদের সাথে কথা বলতে গিয়ে পুতিন বলেছেন, "প্রত্যেকেরই জানা উচিত যে, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, আমরা এখনও ইউক্রেন আক্রমণ করার জন্য একান্তভাবে কিছুই শুরু করিনি"।

তিনি ঘোষণা করেছেন, রাশিয়া যুদ্ধের অবসান ঘটাতে এখনো আলোচনায় বসতে প্রস্তুত রয়েছে। তবে তিনি বলেন, "যারা তা করতে অস্বীকার করে, তাদের জানা উচিত যে এটি যত বিলম্বিত হবে, তাদের পক্ষে আমাদের সাথে চুক্তি করা ততই বেশি কঠিন হবে।"

পুতিন বলেন, “আমরা শুনছি যে তারা আমাদের যুদ্ধক্ষেত্রে পরাজিত করতে চায়। তারা পারলে চেষ্টা করুক।"

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট দাবি করেছেন যে, মস্কোর বিরুদ্ধে পশ্চিমা অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞাগুলি "আমাদের সমাজে বিভাজন ও কলহ লেপন এবং আমাদের জনগণকে হতাশ করার" লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে।

পুতিন বলেন, "ইতিহাসের গতিপথ অপ্রতিরোধ্য এবং বৈশ্বিক ব্যবস্থার তাদের সংস্করণ কার্যকর করার জন্য পশ্চিমের সম্মিলিত প্রচেষ্টা ব্যর্থ হবে।"

XS
SM
MD
LG