অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

গ্রাম-আদালত চালু করতে আর্থিক সহযোগিতা করবে ইইউ: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম


স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম
স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) বাংলাদেশের প্রতিটি ইউনিয়নে গ্রাম-আদালত চালু করতে আর্থিক সহযোগিতা করবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (১৪ জুলাই) নিজ দপ্তরে বাংলাদেশে নব-নিযুক্ত ইইউ রাষ্ট্রদূত চার্লস হোয়াটলি'র সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে, স্থানীয় সরকারমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তাজুল ইসলাম বলেন, “আমাদের সঙ্গে তাদের বিভিন্ন প্রজেক্ট আছে, সেগুলো নিয়ে আলাপ হয়েছে। আমাদের ভিলেজ কোর্ট প্রজেক্টে ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং ইউরোপের কয়েকটি দেশ ফাইন্যান্স করে এবং টেকনোলজিক্যাল সহায়তা করে। কয়েকটি জেলায় এটি পাইলট প্রজেক্ট আকারে চলছিল; আমি তাদের বলেছিলাম, সারা বাংলাদেশে একসঙ্গে ভিলেজ কোর্ট চালু করতে চাচ্ছি। এটি চালু করার জন্য তাদের আর্থিক সাহায্যের জন্য বলেছিলাম। বাংলাদেশ সরকার এবং তারা যৌথভাবে অর্থায়ন করবে। শেষ পর্যন্ত রাজি হয়েছে তারা, ২ কোটি ৮৩ লাখ ৭০ হাজার ডলার দেবে।আর ২ কোটি ৫০ লাখ ডলার দেবে বাংলাদেশ সরকার।”

মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, “প্রত্যেকটি ইউনিয়ন পরিষদে একটি কোর্ট থাকবে। ভিলেজ কোর্টের আইনও হয়েছে, এবিষয়ে সেমিনারও হয়েছে। গ্রামে যে ছোট সমস্যাগুলো হয়, যেগুলো নিয়ে মামলা মোকাদ্দমা হলে, কোর্টে গেলে উভয়পক্ষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সময় ব্যয় হয় এবং কোর্টের ওপর চাপ পড়ে। সেটি যাতে এ পর্যায়ে নিষ্পত্তি করা যায়, সে লক্ষ্যে আমরা একসঙ্গে মিলে গ্রাম-আদালত চালু করব।”

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী আরও বলেন, “লোকাল গভর্নমেন্ট ইনিশিয়েটিভ অন ক্লাইমেট চেঞ্জ প্রজেক্ট-এর জন্য তাদের ফাইন্যান্স ছিল। এখন এটা শেষের পথে। এটি মূলত কোস্টাল এরিয়ায়, যে সব অঞ্চলে সাইক্লোনসহ নানা দুর্যোগে মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়, তারা যাতে মাইগ্রেট না করে, তাদের জন্য যাতে অলটারনেটিভ জীবিকা নির্বাহের ব্যবস্থা করা যায়; এ ধরনের কাজের জন্য দ্বিতীয় ধাপে অর্থায়ন করতে, সুইডেনের রাষ্ট্রদূত, ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূতসহ কয়েকজন আমার সঙ্গে আলোচনার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।”

XS
SM
MD
LG