অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউক্রেনের আটকে থাকা গম রপ্তানির বিষয়ে আলোচনায় অগ্রগতির কথা জানিয়েছে তুরস্ক


ইস্তাম্বুলে রাশিয়া, ইউক্রেন এবং তুরস্কের সামরিক প্রতিনিধিদল জাতিসংঘের কর্মকর্তাদের সাথে সাক্ষাৎ করার পরে তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী হুলুসি আকর কথা বলছেন। ১৩ জুলাই, ২০২২।

তুরস্কের কর্মকর্তারা বলছেন, ইউক্রেনের সাথে রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে বিশ্বব্যাপী খাদ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় ইউক্রেনের শস্য বিশ্ব বাজারে সরবরাহ করার প্রচেষ্টায় সম্ভাব্য অগ্রগতি দেখা দিয়েছে। তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী হুলুসি আকর বলেছেন, বুধবার ইস্তাম্বুলে রাশিয়া, ইউক্রেন, জাতিসংঘ এবং তুরস্কের কর্মকর্তাদের মধ্যে চতুর্মুখী আলোচনার পর শীঘ্রই একটি চুক্তি ঘোষণা করা হতে পারে।

আকর বলেছেন, তুরস্ক পোতাশ্রয়ে চালান চেক করতে এবং কৃষ্ণ সাগরের রপ্তানি পথের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এছাড়া তুরস্কে শস্য রপ্তানির জন্য ইউক্রেন, রাশিয়া এবং জাতিসংঘের সাথে একটি সমন্বয় কেন্দ্র স্থাপন করা হবে বলে জানান তিনি।

বুধবার জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস প্রক্রিয়াটিকে স্বাগত জানালেও সতর্ক করে বলেছেন যে, এখনো এই চুক্তিটি সম্পন্ন হয়নি।

চুক্তিতে পৌঁছানোর কয়েক মাসের কূটনৈতিক প্রচেষ্টায় আস্থা স্থাপন একটি মূল বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিয়েভ বলেছে যে, তারা শস্য রপ্তানি করার জন্য পণ্যবাহী জাহাজগুলোকে অনুমতি দেয়ার উদ্দেশ্যে বন্দর থেকে গোলাবারুদ সরিয়ে নিলে রুশ বাহিনী তাদের এ পদক্ষেপের সুবিধা নেবে এবং আক্রমণ করবে। ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের প্রেক্ষিতে দেশটিতে শস্য আটকে আছে।

মস্কো এখন পর্যন্ত ইস্তাম্বুল আলোচনার বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি।

এদিকে জাতিসংঘ সতর্ক করেছে যে, ইউক্রেনের বন্দরে আটকে থাকা লাখ লাখ টন শস্য ছাড়া না হলে বিশ্বব্যাপী খাদ্যের দাম বাড়তে থাকবে। এর ফলে বিশ্বজুড়ে দুর্ভিক্ষ দেখা দেয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

ইউক্রেন একটি শীর্ষস্থানীয় গম রপ্তানিকারক দেশ। আফ্রিকার দেশগুলো ইউক্রেনের শস্যের ওপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি বলেছেন, ইউক্রেন একটি চুক্তিতে পৌঁছাতে বদ্ধপরিকর।

XS
SM
MD
LG