অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

কোভিড শাটডাউনের সময় চীনের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ২ দশমিক ৬ শতাংশ সংকুচিত


চীনের সাংহাইয়ে করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধ করার জন্য লকডাউন চলাকালীন প্রতিরক্ষামূলক স্যুট পরা একজন কর্মী একটি বন্ধ সেতুর উপর দিয়ে হেঁটে যাচ্ছে । মে ১৮, ২০২২
চীনের সাংহাইয়ে করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধ করার জন্য লকডাউন চলাকালীন প্রতিরক্ষামূলক স্যুট পরা একজন কর্মী একটি বন্ধ সেতুর উপর দিয়ে হেঁটে যাচ্ছে । মে ১৮, ২০২২

করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের মোকাবিলা করার উদ্দেশ্যে সাংহাই এবং অন্যান্য শহরগুলোর কর্মতত্পরতা বন্ধ হওয়ার পরে পূর্ববর্তী তিন মাসের তুলনায় জুনে শেষ হওয়া ৩ মাসে চীনের অর্থনীতি সংকুচিত হয়েছে। তবে সরকার বলেছে, ব্যবসাগুলো পুনরায় খোলার পরে একটি “স্থিতিশীল পুনরুদ্ধারের” কাজ চলছে।

শুক্রবার সরকারি তথ্য জানিয়েছে, বিশ্বের এই দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি ২ দশমিক ৬ শতাংশ সংকুচিত হয়েছে যা জানুয়ারি থেকে মার্চে ইতোমধ্যে দুর্বল ১ দশমিক ৪ শতাংশ অর্থনৈতিক সংকচনকে আরও নীচে নামিয়েছে। এক বছর আগের তুলনায় প্রবৃদ্ধির হার আগের ত্রৈমাসিকের ৪ দশমিক ৮ শতাংশ থেকে শূন্য দশমিক ৪ –এ নেমে এসেছে।

বারবার শাটডাউন এবং ব্যবসার পরিস্থিতি সম্পর্কে অনিশ্চয়তা চীনে নতুন সম্পদ এবং চাকরিদাতা উদ্যোক্তাদের ধ্বংস করেছে। ছোটখাটো দোকান ও রেস্তোরাঁ বন্ধ হয়ে গেছে। অন্যরা বলছেন, তারা টিকে থাকতে হিমসিম খাচ্ছেন।

ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টি কোম্পানিগুলোকে সচল করতে কর ফেরত দেওয়া, বিনামূল্যে ভাড়া এবং অন্যান্য সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে। তবে বেশিরভাগ পূর্বাভাসকারীরা আশঙ্কা করছেন, চীন এই বছর ক্ষমতাসীন দলের ৫ দশমিক ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হবে।

এক বছর আগের তুলনায় বছরের প্রথমার্ধে প্রবৃদ্ধি ছিল ২ দশমিক ৫ শতাংশ । এটি গত ৩ দশকের সবচেয়ে দুর্বল স্তরগুলোর মধ্যে একটি।

চীন ২০২০ সালে মহামারীর ধকল দ্রুত কাটিয়ে উঠেছিল, কিন্তু সরকার তার বিশাল রিয়েল এস্টেট শিল্পের ঋণ ব্যবহারের ওপর নিয়ন্ত্রণ কঠোর করার কারণে কার্যকলাপ দুর্বল হয়ে পড়ে। রিয়েল এস্টেট শিল্প লাখ লাখ কর্মসংস্থান তৈরিতে ভূমিকা রেখে থাকে। নির্মাণ এবং আবাসন বিক্রয়ে মন্দার কারণে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি কমে গেছে।

XS
SM
MD
LG