অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইরাকের ডোহুকে হামলায় ৮ জনকে হত্যার দায় অস্বীকার করেছে তুরস্ক


ইরাকের স্বায়ত্ত্বশাসিত কুর্দি অঞ্চলের উত্তরাঞ্চলে অবস্থিত ঝাখো শহরে তুরস্কের গোলাবর্ষণের পর এক আহত তরুণকে অ্যাম্বুলেন্সে তোলা হচ্ছে, ২০ জুলাই ২০২২।

ইরাকের উত্তরাঞ্চলের ডোহুক প্রদেশে একটি পার্বত্য অবকাশস্থলে তুরস্ক হামলা চালিয়েছে বলে ইরাকের সরকারি মাধ্যমের করা দাবিটি তুরস্ক বুধবার প্রত্যাখ্যান করেছে। ঐ হামলায় আট পর্যটক নিহত এবং ২৩ জন আহত হন।

ঐ “ভয়াবহ গোলাবর্ষণ” ঝাখো’র এক রিসোর্টে আঘাত হানে বলে, ইরাকের রাষ্ট্রীয় টিভি জানায়। ইরাকের কুর্দিস্তান অঞ্চল এবং তুরস্কের সীমান্তের মধ্যবর্তী এক শহর ঝাখো।

হামলার শিকার মানুষদের মধ্যে শিশুরাও ছিল। তাদের মধ্যে ১ বছর বয়সী এক শিশু ছিল বলে কুর্দি স্বাস্থ্যমন্ত্রী এক বিবৃতিতে জানান। তিনি আরও বলেন, হামলার শিকার সকলই হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই মারা যান।

এদিকে তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রক বলে যে, হামলায় হতাহতের খবরে তুরস্ক ব্যথিত হয়েছে এবং জানায় যে, নিষিদ্ধ ঘোষিত কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টি (পিকেকে) এর আধাসামরিক বাহিনী ও অন্যান্যদের বিরুদ্ধে তাদের সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানটিতে বেসামরিক ক্ষতি এবং ঐতিহাসিক স্থাপনাগুলোকে এড়াতে তুরস্ক সর্বোচ্চ সতর্কতা গ্রহণ করেছিল।

এক বিবৃতিতে মন্ত্রক বলে, “সত্য যাতে প্রকাশিত হয় সেজন্য তুরস্ক সকল পদক্ষেপ নিতে প্রস্তুত রয়েছে।” তাতে আরও বলা হয় যে, তুরস্কের সামরিক অভিযান আন্তর্জাতিক আইনের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ ছিল।

মন্ত্রকের বিবৃতিতে পিকেকে এর বিষয়ে বলা হয়, “জঘন্য এই সন্ত্রাসী সংগঠনের বাগাড়ম্বর ও অপপ্রচার দিয়ে প্রভাবিত হয়ে মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকতে এবং এই নিষ্ঠুর কর্মকাণ্ড পরিচালনাকারীদের পরিচয় উন্মুক্ত করতেসহযোগিতা করার জন্য ইরাকের সরকারের প্রতি আমরা আহ্বান করছি।”

তুরস্ক নিয়মিতভাবে ইরাকের উত্তরাঞ্চলে হামলা পরিচালনা করে এবং তাদের আক্রমণে সহায়তা করতে কমান্ডোদের সেখানে প্রেরণ করেছে। কুর্দি পিকেকে এবং সিরিয়ার কুর্দি ওয়াইপিজে আধাসামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে ইরাক ও সিরিয়ায় তুরস্ক দীর্ঘদিন ধরে অভিযান পরিচালনা করছে। ঐ উভয় সংগঠনকেই তুরস্ক সন্ত্রাসী গোষ্ঠী হিসেবে বিবেচনা করে।

XS
SM
MD
LG