অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মালিতে সর্বসাম্প্রতিক জঙ্গি হামলায় ১৮ জন নিহত


ইসলামী চরমপন্থীদের চালানো এক আক্রমণে বেঁচে যাওয়া এক তরুণকে মোপটি শহরের সোমিন ডোলো হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ২৪ জুন ২০২২। (ফাইল ফটো)

মালির সামরিক সরকার জানিয়েছে যে, বুধবার বিদ্রোহী পরিচালিত সমন্বিত আক্রমণে ১৫ জন সৈন্য ও তিনজন বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছে। একই সময়ে বেশ কয়েকজন জঙ্গিও নিহত হয়। বিশ্লেষকরা বলছেন আক্রমণগুলো পশ্চিম আফ্রিকার দেশটিতে ফরাসি বাহিনী প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর থেকে ক্রমবর্ধমান নিরাপত্তাহীনতার বিষয়টি তুলে ধরে।

মালির মধ্যাঞ্চলের মোপটি শহরের সামরিক লক্ষ্যবস্তুর বিরুদ্ধে বুধবার আক্রমণগুলো চালানো হয়। মোপটি ছাড়াও মালির মধ্যাঞ্চলের সোকোলো এবং কালুম্বা-তেও আক্রমণ চালানো হয়। প্রকাশিত এক বিবৃতিতে মালির সেনাবাহিনী বলে যে, তারা ৪৮ জন জঙ্গিকে “হত্যা” করেছে।

বিবৃতিতে সশস্ত্র বাহিনীর চিফ অফ স্টাফ মালি’র মানুষজনকে আশ্বস্ত করেন এবং পর্যবেক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানান যাতে তারা গতি হারাতে থাকা এই প্রতিপক্ষের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডে বিভ্রান্ত না হয়ে পড়ে। চিফ অফ স্টাফের বিশ্লেষণ অনুযায়ী, সাম্প্রতিক হামলাগুলো মালির ভূখণ্ডে সশস্ত্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর শেষ অবস্থা প্রমাণ করে।

ফোডি তান্ডজিগোরা, বামাকো বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞানের একজন অধ্যাপক এবং একাধিক সংস্থায় কর্মরত মালির নিরাপত্তা বিষয়ক একজন গবেষক। বামাকো থেকে তিনি জানান যে, এমন আশ্বাস সত্ত্বেও মালিতে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়ে চলেছে এবং তা এক নতুন পর্যায়ে প্রবেশ করেছে, যেখানে ইসলামী জঙ্গিরা আরও ভালভাবে সংগঠিত হয়ে একই সময়ে পরিকল্পিত আক্রমণ চালাতে পারছে।

গত সপ্তাহেও জঙ্গিরা একাধিক লোকালয়ে পর্যায়ক্রমিক হামলা চালিয়েছিল। এরপর তারা কাটিতে আক্রমণ চালায়। সেটি বামাকো থেকে মাত্র ১৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এক শহর এবং ঐ শহরেই দেশটির সেনাবাহিনীর প্রধান ঘাঁটি অবস্থিত।

XS
SM
MD
LG