অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

দীর্ঘদিন বন্ধ রাখার পর নিউজিল্যান্ডের সীমান্ত সম্পূর্ণ খুলে দেয়া হয়েছে


লস অ্যাঞ্জেলস থেকে একটি ফ্লাইট অকল্যান্ড আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর আত্মীয়রা আলিঙ্গন করছে। ২ মে, ২০২২। ফাইল ছবি।

কোভিড মহামারীর কারণে ২০২০ সালের মার্চ মাসে বন্ধ করার পর সোমবার প্রথমবারের মতো বিশ্বজুড়ে দর্শনার্থীদের জন্য নিউজিল্যান্ডের সীমানা পুনরায় সম্পূর্ণরূপে খুলে দেয়া হয়েছে।

এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে নিউজিল্যান্ডের সীমানা আবার খুলতে শুরু করে, প্রথমে নিউজিল্যান্ডবাসীর জন্য এ সীমানা খুলে দেয়া হয়। ধীরে ধীরে নিষেধাজ্ঞাগুলো শিথিল করা হয়েছে।

সীমানা খোলার প্রক্রিয়া রবিবার রাতে সমাপ্ত হয়েছে। ভিসাপ্রার্থী অভ্যাগত এবং স্টুডেন্ট ভিসাধারীদেরও এখন নিউজিল্যান্ডে ফিরে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হয়েছে। নিউজিল্যান্ড এখন তাদের বন্দরে প্রমোদ তরী এবং বিদেশী বিনোদনমূলক ইয়ট ভিড়তে দিচ্ছে।

নিউজিল্যান্ডে আগত বেশিরভাগ দর্শনার্থীকে এখনো কোভিড সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে টিকা দিতে হবে এবং সেখানে পৌঁছানোর পরে অবশ্যই দুটি কোভিড টেস্ট করতে হবে। তবে কোয়ারেন্টিনের কোনো শর্ত নেই।

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জ্যাসিন্ডা আরডার্ন সোমবার অকল্যান্ডে চীন বাণিজ্য সম্মেলনে বক্তব্য রাখার সময় বলেছেন, সীমান্ত খোলার চূড়ান্ত পর্যায়টি একটি বিশাল মুহূর্ত ছিল। আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীরা নিউজিল্যান্ডের অর্থনীতিতে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখে। শিক্ষা প্রদানকারীরাও আশা করছেন, সীমানা পুনরায় খোলার ফলে আবারও দেশের স্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে উল্লেখযোগ্য হারে আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীরা ভর্তি হবে।

নিউজিল্যান্ডের পর্যটন মন্ত্রী স্টুয়ার্ট ন্যাশ বলেছেন, প্রমোদ তরীর প্রত্যাবর্তন স্থানীয় শিল্পেও উৎসাহ জোগাবে।

ন্যাশ বলেছেন, “অধিকাংশ প্রমোদ ভ্রমণ অক্টোবর থেকে এপ্রিলের উষ্ণ মাসগুলোতে হয়, এবং গ্রীষ্মকাল আমাদের পর্যটনের জন্য সবচেয়ে ভালো মৌসুম। এর মানে এই মৌসুম পর্যটন শিল্পের জন্য পূর্ণ উদ্যোমে কার্যকর হবে।”

XS
SM
MD
LG