অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভিওএ-র ইরানি-আমেরিকান সাংবাদিকের বাড়ির কাছে রাইফেলসহ একজন গ্রেপ্তার


নিউইয়র্কে উইমেন ইন দ্য ওয়ার্ল্ড সামিটের মঞ্চে বক্তব্য দিচ্ছেন, ইরানী সাংবাদিক এবং নারী অধিকার কর্মী, মাসিহ আলিনেজাদ। ১২ এপ্রিল, ২০১৯। (ফাইল ছবি)

ভয়েস অফ আমেরিকার একজন ইরানি-আমেরিকান সাংবাদিক বলেছেন, এটি "অত্যন্ত বেদনাদায়ক" যে, গত সপ্তাহে নিউইয়র্কের ব্রুকলিনে তার বাড়ির বাইরে একটি গুলি ভরা একে-৪৭ রাইফেলসহ এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মাসিহ আলিনেজাদ নামের ওই সাংবাদিক, যিনি একজন নারী অধিকার কর্মীও, গত বছর তেহরান-সমর্থিত অপহরণের ষড়যন্ত্রের লক্ষ্যবস্তু ছিলেন। আলিনেজাদ ইরানের হিজাব বা মাথা ঢেকে রাখার আইন লঙ্ঘন করা নারীদের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় তার লক্ষ লক্ষ অনুসরণকারীদের কাছে প্রচার করেছেন।

ফেডারেল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন বা এফবিআই এজেন্ট শুক্রবার ম্যানহাটনের ফেডারেল আদালতে দায়ের করা একটি অভিযোগে লিখেছেন, সন্দেহভাজন খালিদ মেহদিয়েভ, গত সপ্তাহে আলিনেজাদের বাড়ির বাইরে দুই দিন কাটিয়েছেন এবং এক পর্যায়ে তিনি দরজা খোলার চেষ্টা করেন।

অভিযোগ অনুসারে, পরবর্তীতে একটি স্টপ সাইনে না থেমে সোজা গাড়ী চালিয়ে যাবার চেষ্টা করলে, পুলিশ তার গাড়ী থামায় এবং গাড়ীর পিছনের সিটে বন্দুকটি খুঁজে পাওয়ার পর তাকে গ্রেপ্তার করে।

মেহদিয়েভের বিরুদ্ধে সিরিয়াল নম্বর মুছে ফেলা একটি আগ্নেয়াস্ত্র রাখার অভিযোগ আনা হয়। আদালতের রেকর্ডে দেখা যায়, শুক্রবার দুপুরে শুনানিতে একজন বিচারক তাকে জামিন ছাড়াই আটক রাখার নির্দেশ দেন। মেহদিয়েভের আইনজীবী এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এর আগে, গত বছর যুক্তরাষ্ট্রের প্রসিকিউটররা তেহরানের কথিত গোয়েন্দা অপারেটিভ চার ইরানিকে এই মর্মে অভিযুক্ত করেছিল যে তারা ভিওএ-র ফার্সি বিভাগ এবং ইরানের মানবাধিকার বিষয়ক রিপোর্টার আলিনেজাদকে অপহরণের ষড়যন্ত্র করেছিল।

তবে, অপহরণের ষড়যন্ত্রে সরকারের জড়িত থাকার অভিযোগকে ‘ভিত্তিহীন’ বলে উড়িয়ে দিয়েছে তেহরান।

XS
SM
MD
LG